সুপ্রিম কোর্টের রায়ে বড় জয় পেল কেজরিওয়াল সরকার। বুধবার সুপ্রিম কোর্ট তার রায়ে লেফট্যান্যান্ট গভর্নরের ক্ষমতা নির্দিষ্ট করে বেঁধে দিয়েছে। যাকে এক ট্যুইট বার্তায় ‘দিল্লিবাসীর বড় জয়...গণতন্ত্রের বড় জয়’ বলে জানিয়েছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীওয়াল।

এদিন সুপ্রিম কোর্ট তার রায়ে লেফট্যান্যান্ট গভর্নরের এক্তিয়ার প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে জানিয়েছে সংবিধানে নির্দিষ্ট করে দেওয়া সীমারেখার মধ্যেই তাঁকে থাকতে হবে। সুপ্রিম কোর্ট আরও জানিয়েছে, জমি, পুলিশ ছাড়া দিল্লীর নির্বাচিত সরকারের ওপরেই সব দায়িত্বভার থাকবে এবং জনগণ যে সরকারকে নির্বাচিত করবেন সেই সরকারের কাজে বাধা হতে পারবেন না লেফট্যান্যান্ট গভর্নর।

প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র, বিচারপতি এ কে শিকরি এবং বিচারপতি এ এম খানউইলকারের বেঞ্চ এদিনের রায়ে স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছে দিল্লির নির্বাচিত সরকারের কোনও সিদ্ধান্তে হস্তক্ষেপ করতে পারবেন না লেফট্যান্যান্ট গভর্নর। সংবিধানের ২৩৯এএ ধারা অনুযায়ী প্রতিটি বিষয়ে লেফট্যান্যান্ট গভর্নর দিল্লির নির্বাচিত সরকারের সিদ্ধান্ত শুনতে বাধ্য থাকবেন। দিল্লির প্রশাসনিক প্রধান হলেও স্বাধীনভাবে কাজ করবার কোনও অধিকার তাঁর নেই।

প্রসঙ্গত, বিগত তিন বছর ধরে বিষয়টি নিয়ে টানাপোড়েন চলছিলো। অরবিন্দ কেজরিওয়াল নেতৃত্বাধীন আপ সরকার দিল্লীতে ক্ষমতাসীন হবার সময় থেকে যে বিবাদের শুরু আজ তার নিস্পত্তি হল বলেই মনে করা হচ্ছে। এর আগে দিল্লি হাইকোর্ট লেফট্যান্যান্ট গভর্নরের ক্ষমতার পক্ষেই রায় দিয়েছিলো। কদিন আগেই এই বিষয়ে টানা ৯ দিন ধরে লেফট্যান্যান্ট গভর্নরের বাসভবনে ধরণা দিয়ে বসেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল সহ শীর্ষস্থানীয় আপ নেতারা।

(ফাইল ছবি)

(অরবিন্দ কেজরিওয়ালের অফিসিয়াল ট্যুইটার হ্যান্ডেল থেকে ট্যুইট সংগৃহীত)


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন