'বিজেপি রাজনীতি করে রাজস্থানের কংগ্রেস সরকারকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছে', শনিবার এই মর্মে আক্রমণ শানালেন রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট। এমনকী, রাজ্যের কংগ্রেস সরকারকে ফেলার জন্য বিরোধী দল কংগ্রেস বিধায়কদের কেনার চেষ্টা করছে। গেহলট অভিযোগ করেন, বিধাকদের ১০ থেকে ১৫ কোটি টাকা পর্যন্ত দেওয়ার প্রস্তাবও দেওয়া হচ্ছে। 

এদিন সকালে রাজস্থান পুলিশের এসওজি (স্পেশাল অপারেশনস গ্রুপ) এবং এসিবির (দুর্নীতি দমন ব্যুরো) কাছে অভিযোগ দায়ের করে চিফ হুইপ মহেশ জোশী জানান, 'তদন্তের কারণে বিজেপি আতঙ্কিত। মহারাষ্ট্র, কর্নাটক, মধ্যপ্রদেশ এবং গুজরাতে তারা ঘোড়া কেনাবেচার সঙ্গে জড়িত। এবার তারা রাজস্থানেও চেষ্টা করেছিল ঘোড়া কেনাবেচার, কিন্তু হাতে কিছুই আসেনি। তদন্তে সব সত্যিই বেরিয়ে আসবে।'

 

দক্ষিণ রাজস্থানের কুশনগরের এক বিধায়ককে বিজেপির তরফে টাকা দেওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। যদিও বিজেপির তরফে এই অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে। গত সপ্তাহে চিফ হুইপ মহেশ জোশী ও ডেপুটি চিফ হুইপ মহেন্দ্র চৌধুরি ২৪ জন বিধায়কের তরফে জানান, 'কংগ্রেস বিধায়করা বিজেপির এই অপচেষ্টাকে সফল হতে দেয়নি।'

উল্লেখ্য, এই বিবৃতিতে সই করেছেন ২৪ জন বিধায়কই। ঠিক একইরকম ভাবে গত মাসে রাজ্যসভা ভোটের সময়ও বিধায়কদের লোভ দেখানো হয়েছিল। বিবৃতিতে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, কোনওরকম লোভনীয় প্রস্তাবেই বিধাকরা নিজেদের অখন্ডতা বিকিয়ে দেবেনা। রাজস্থানে কংগ্রেস সরকার ৫ বছর পূর্ণ করবেই। গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত সরকারকে দুর্বল করার জন্য বিজেপি বারবার এই প্রচেষ্টা চালানোর প্রস্তুতি নিয়েছে বলেও অভিযোগ করেন বিধায়করা। 


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন