মহারাষ্ট্রে ক্রমশই চিন্তার কারণ হয়ে উঠছে ধারাভি বস্তি অঞ্চল। তিন করোনা সংক্রমিতের মৃত্যু এবং বারো জনেরও বেশি সংক্রমিতের হওয়ায় এই অঞ্চলকে বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে দেখছে মহারাষ্ট্র সরকার। ইতিমধ্যেই এই ঘনবসতি পূর্ণ অঞ্চল ঘিরে উদ্বেগ বেড়েছে মহারাষ্ট্রের।

এখনও পর্যন্ত পাওয়া তথ্য অনুসারে ধারাভি অঞ্চলে তিন ব্যক্তির করোনা সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে। যাঁদের বয়স যথাক্রমে ৫৬, ৬৪ এবং ৭০ বছর। গত কয়েকদিন ধরেই ধারাভির বিধায়ক এবং রাজ্যের মন্ত্রী বর্ষা গায়কোয়াড় বিষয়টির ওপর নজর রেখে চলছেন। এদিন তিনি জানিয়েছেন, ধারাভিতে একই বাথরুম বহুজন ব্যবহার করেন। আমরা তার স্যানিটাইজ করার ব্যবস্থা করছি। একইসঙ্গে কীভাবে এখানকার মানুষজনকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো যায় সে চেষ্টাও করা হচ্ছে।

সরকারি সূত্রের খবর অনুসারে ধারাভিতে একই ঘরে ৬ থেকে ৮ জন করে থাকেন। ফলে এখানে সোশ্যাল ডিস্ট্যান্সিং মেনে চলা খুবই দুরূহ কাজ। কিছু মানুষকে ইতিমধ্যেই অন্য জায়গায় সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

 


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন