দিল্লির জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া-শিক্ষকদের ওপর আক্রমণ এবং তার পরিপ্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের ভূমিকা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের এমিরেটাস প্রফেসরের পদ ত‍্যাগ করলেন প্রখ্যাত অর্থনীতিবিদ অমিত ভাদুড়ি।

৫ ই জানুয়ারি সন্ধ্যায় মুখোশধারী কিছু দাঙ্গাবাজ জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রায় তিন ঘন্টারও বেশি সময় ধরে তান্ডব চালায়। এর ফলে শিক্ষক, কর্মচারী সহ ৩৬ জন ছাত্র আহত হন। এই ঘটনার পর জেএনইউএসইউ এবং জেএনইউটিইউ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য জগদীশ কুমারের পদত্যাগের দাবি জানায়।

 বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য জগদেশ কুমারকে একটি ই-মেইলে করে প্রফেসর ভাদুড়ি জানান, "জেএনইউতে আমি আমার এমিরেটাস প্রফেসরি থেকে পদত্যাগ করছি।" পরে এই মেইল তিনি নিজেই প্রকাশ‍্যে আনেন।

তীব্র প্রতিবাদের ভাষা যুক্ত ওই চিঠিতে তিনি লিখেছেন, "এটা করতে আমার খুব কষ্ট হচ্ছে কিন্তু তবুও আমার মনে হয়েছে, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ যেভাবে এখন ভিন্নমত পোষণকারী ছাত্রছাত্রীদের টুঁটি চেপে ধরছে, তা এভাবে নিরব দর্শকের মতো দেখতে পারবো না আমি।"

 চিঠিতে উপাচর্যকে উদ্দেশ্য করে তিনি লেখেন , "আমি আমার বন্ধুদের কাছ থেকে জেনেছি এবং সংবাদ চ্যানেলগুলো থেকে প্রত্যক্ষ করেছি, এখন জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক এবং একাডেমিক প্রধান হিসেবে আপনি যেভাবে পরিস্থিতির সামাল দিচ্ছেন তাতে বৌদ্ধিক বিচ্ছিন্নতার পথ প্রশস্ত হচ্ছে এবং ক্রমশ তা অবনতির দিকে যাচ্ছে।"

খোলা চিঠিতে অর্থনীতিবিদ জেএনইউয়ের বর্তমান পরিবেশের সঙ্গে ১৯৭৩ সালে তিনি যখন বিশ্ববিদ্যালয়ে জুনিয়র প্রফেসর হিসেবে যোগ দিয়েছিলেন, তখনকার পরিস্থিতির তুলনা করেন। তিনি বলেন, জেএনইউ যে বিতর্ক-আলোচনার মুক্ত ও গৌরবময় ক্ষেত্র হিসেবে সারা বিশ্বে পরিচিত তা ইচ্ছাকৃত ভাবে ধ্বংস করা হচ্ছে। এক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য গুরুত্বপূর্ণ অংশ পালন করছেন বলে মনে করেন তিনি।

পড়ুয়া-শিক্ষকদের ওপর হামলার ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে গত সপ্তাহে সরকার নির্ধারিত পরিসংখ্যান কমিটি থেকে পদত্যাগ করেছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর সি পি চন্দ্রশেখর।


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন