প্রচারের সময় বহুবার বলা হয়েছে ভোটে জিতলে দেবেন্দ্র ফড়নবিশ মুখ্যমন্ত্রী হবে। তখন কেউ আপত্তি তুলেনি যখন এখন কেনো নতুন দাবি তোলা হচ্ছে। - সরকার গড়া নিয়ে মহারাষ্ট্রে শিবসেনা ও বিজেপির ক্ষমতা ভাগাভাগির লড়াই শুরু হওয়ার পর এই প্রথম সংবাদমাধ্যমের সামনে এ প্রসঙ্গে মুখ খুলে একথা বললেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। সংবাদমাধ্যমে তিনি পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন শিবসেনার দাবি কোনোভাবেই মানা সম্ভব নয়।

আজ সংবাদমাধ্যমে অমিত শাহ বলেন, "নির্বাচনের আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও আমি বহুবার জনসভায় বলেছি জোট জিতলে দেবেন্দ্র ফড়নবিশকে মুখ্যমন্ত্রী করা হবে। তখন কেউ আপত্তি তোলেনি। এখন ওনারা নতুন দাবি নিয়ে এসেছেন যা আমাদের পক্ষে গ্রহণ করা সম্ভব নয়।"

শিবসেনার সাথে বিজেপির গোপনীয় কথা প্রকাশ‍্য আনায় অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।‌ তিনি বলেন, "বন্ধ দরজার ওপারে কি আলোচনা হয়েছে তা প্রকাশ‍্যে আনা আমাদের দলের ঐতিহ্য নয়। যদি সেনারা ভাবে এটা নিয়ে বিদ্রোহ দেখিয়ে জনতার সমবেদনা আদায় করবে তাঁরা, তাহলে তাঁরা জনগণকে চেনেন না।"

২৮৮ আসনের মহারাষ্ট্র বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি ও শিবসেনার জোট যৌথভাবে জয়লাভ করলেও নির্বাচনের ফল ঘোষণার পরই আড়াই বছরের জন্য মুখ্যমন্ত্রী পদের দাবি করতে শুরু করে শিবসেনা। অপরদিকে বিজেপি মুখ্যমন্ত্রীর পদ ছাড়তে নারাজ। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে এই সমস্যার কোনো রফা সূত্র না মেলায় মঙ্গলবার রাষ্ট্রপতি শাসন জারি হয়েছে মহারাষ্ট্রে।

এই প্রসঙ্গে অমিত শাহ বলেন, "মহারাষ্ট্রে সরকার গঠনের জন্য ১৮ দিন সময় দেওয়া হয়েছিল, যেকোনো রাজ‍্যের ক্ষেত্রে যা অভূতপূর্ব। বিধানসভার মেয়াদ শেষ হওয়ার পর সমস্ত দলকেই সরকার গড়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন রাজ‍্যপাল। কোনো দল সরকার গড়ার দাবি না তোলায় রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা হয়েছে।"


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন