উত্তরপ্রদেশে সম্ভাল জেলায় গোনহাট গ্রামে এক প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২০০-র বেশি গোরুকে আটকে রাখলেন স্থানীয় গ্রামবাসীরা। বিদ্যালয়ে ক্লাস চলাকালীনই মঙ্গলবার গ্রামবাসীরা গোরুগুলোকে স্কুলে ঢুকিয়ে দিয়ে যান। তাঁদের অভিযোগ, গোরুর দল তাঁদের খেতের ফসল খেয়ে নিচ্ছে, নষ্ট করে দিচ্ছে। সম্প্রতি রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে গোরুর উৎপাতে ফসলের সর্বনাশ হয়ে যাচ্ছে বলে অভিমত কৃষকদের।

এই ঘটনার খবর পেয়ে প্রাথমিক শিক্ষা বিকাশ আধিকারিক দ্রুত ওই গ্রামে পৌঁছান। সেই সময় একসঙ্গে ২০০ গোরু স্কুলের ভেতর দেখে আতঙ্কিত বাচ্চারা নিজেদের ক্লাসরুমের ভেতরেই দরজা বন্ধ করে বসেছিলো। গ্রামবাসীরা বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ থেকে গোরু সরাতে রাজী না হওয়ায় ঘটনাস্থলে পুলিশ ডেকে আনেন শিক্ষা বিকাশ আধিকারিক।

ওই প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জানিয়েছেন, বিদ্যালয়ের ৩৩৪ জন ছাত্রের মধ্যে মাত্র ৮০ জন ছাত্রকে তাঁরা ক্লাসরুমের ভেতর ঢোকাতে পেরেছিলেন। বাকী ছাত্ররা গোরুদের সঙ্গে স্কুলের মাঠেই ছিলো।

এই ঘটনায় শিক্ষা বিকাশ আধিকারিকের নির্দেশে গ্রামবাসীদের বিরুদ্ধে এফ আই আর দায়ের করা হয়েছে। স্কুলের গেট ভেঙে শিশুদের বিপদের মধ্যে ঠেলে দেওয়ার ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি।


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন