অত‍্যন্ত মর্মান্তিক ঘটনা সাক্ষী থাকল যোগী আদিত্যনাথের রাজ‍্য উত্তরপ্রদেশ। ছোট্ট শিশুর চিকিৎসা না করেই ফিরিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠলো হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে। শরীরে অত্যধিক জ্বর অবস্থায় ন'বছরের আফরোজকে সাহজাহানপুর হাসপাতালে নিয়ে এসেছিল তার বাবা-মা। সেখানে ডাক্তাররা তাকে ছুঁয়েও দেখেননি, উল্টে লখনৌ হাসপাতালে রেফার করে দেওয়া হয়। এরপর বারবার অনুরোধ সত্ত্বেও হাসপাতাল থেকে একটা অ‍্যাম্বুলেন্স দেওয়া হয়নি আফরোজকে লখনৌ নিয়ে যাওয়ার জন্য। অবশেষে কোলে শিশুটির মৃতদেহ আঁকড়ে বাড়ি ফিরলেন তার মা।

আফরোজের মা জানিয়েছেন, "খুব জ্বর ছিল ওর। আমরা ওকে কিছু ওষুধ দিয়েছিলাম। ওর অবস্থা আরও খারাপ হতে আমরা ওকে সাহাজাহানপুর হাসপাতালে ভর্তি করি। ওখানে ডাক্তাররা আমাদের অন‍্য হাসপাতালে যেতে বলেন কারণ ওই হাসপাতালে কোনো সুযোগ সুবিধা পাওয়া যাবে না।"

আফরোজের বাবার কথায়, "আমাদের কাছে খুব কম টাকা ছিল। আমরা আ‍্যাম্বুলেন্সের চালক ও হাসপাতালের অন‍্যান‍্য স্টাফদের বারবার অনুরোধ করেছিলাম আমাদের কাছে যা আছে সবকিছুর বিনিময়ে অন‍্য হাসপাতালে পৌঁছে দেওয়া হোক। ওখানে তিনটে অ‍্যাম্বুলেন্স ছিল। আমরা জানিনা কেন একটি অ‍্যাম্বুলেন্সও আমাদের দেওয়া হলো না।"

অন‍্য কোনো ব‍্যক্তিগত গাড়ি ভাড়া করার সামর্থ্য না থাকায় অসুস্থ আফরোজকে কোলে নিয়েই হাঁটতে শুরু করে তার বাবা-মা। বাড়ি ফেরার পথেই মারা যায় শিশুটি।

যদিও সাহজাহানপুর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এই সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছে। ট্রমা সেন্টার ও এমার্জেন্সি বিভাগের অফিসার অনুরাগ পরাশর জানিয়েছেন, "আফরোজ নামের শিশুটিকে নিয়ে তার বাবা-মা রাত্রি ৮.১০ নাগাদ হাসপাতালে এসেছিল। শিশুটির অবস্থা ভালো ছিল না, তাই আমরা লখনৌ হাসপাতালে নিয়ে যেতে বলি। কিন্তু ওরা আমাদের কথা শোনেননি। শিশুটিকে নিয়ে চলে যায়। পথেই শিশুটি মারা যায়।"


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন