৫৪৩টি আসনের মধ্যে গত তিন দফায় ৩০৩টি আসনে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। বাকি ২৪০টি কেন্দ্রের মধ্যে আগামী সোমবার ২৯শে এপ্রিল পশ্চিমবঙ্গ সহ মোট ৯টি রাজ‍্যের ৭১টি আসনে নির্বাচন। ৭১টি আসনের মধ্যে মহারাষ্ট্রের ১৭টি, রাজস্থান ও উত্তরপ্রদেশের ১৩টি, পশ্চিমবঙ্গের ৮টি, মধ‍্যপ্রদেশে ৬টি, ওড়িশাতে ৬টি, বিহারে ৫টি ও ঝাড়খণ্ডের ৩টি কেন্দ্র রয়েছে।

 ২০১৪ সালের নির্বাচনে এই ৭১টি আসনের মধ্যে ৪৫টিতে জিতেছিল বিজেপি। কংগ্রেসের ঝুলিতে গিয়েছিল মাত্র দুটি। ২০১৯-এ কি এই ৪৫টি আসন ধরে রাখতে পারবে বিজেপি? নাকি হেরফের হবে আসন সংখ্যার?

২০১৪ সালের তুলনায় পরিস্থিতি এবার অনেকটাই আলাদা। এক নজরে দেখে নেওয়া যাক কী কী পরিবর্তন হয়েছে --

১) ২০১৪ সালে বিহারের শাসকদল JD(U), বিজেপির বিরুদ্ধে ছিল। কিন্তু বর্তমানে NDA-এর সাথে জোট বেঁধেছে JD(U)। অপরদিকে, RJD ও কংগ্রেস একসাথে লড়াই করছে। আবার বিজেপির শত্রুঘ্ন সিনহা, কীর্তি আজাদের মতো বিজেপি সাংসদরা বর্তমানে কংগ্রেসের মূলধন।

২) ঝাড়খণ্ডে ১৪টি আসনের মধ্যে ২০১৪ সালে বিজেপির দখলে ছিল ১২টি। এবার বিজেপির বিরুদ্ধে জোট বেঁধেছে কংগ্রেস, ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চা, RJD, ঝাড়খণ্ড বিকাশ মোর্চা (প্রজাতান্ত্রিক)।

৩) চতুর্থ দফায় হওয়া ৯টি রাজ‍্যের মধ্যে সবথেকে উত্তেজনাপূর্ণ লড়াই 'দেশ কি দিল' মধ্যপ্রদেশে। টানা ১৫ বছর ক্ষমতায় থাকার পর সম্প্রতি ক্ষমতাচ্যুত হয়েছে বিজেপি এখানে। শাসকের সিংহাসনে এখন কংগ্রেসের কমলনাথ। চতুর্থ দফায় যে ছটি কেন্দ্রে ভোট হবে, ২০১৪ সালে এর মধ্যে পাঁচটিতে জিতেছিল বিজেপি। বিধানসভা নির্বাচনের প্রভাব লোকসভা নির্বাচনেও থাকবে বলে মনে করছেন একাধিক রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ।

৪) ওড়িশার ৬টি আসনে ৬টিতেই ২০১৪ সালে জিতেছিল বিজু জনতা দল(BJD)। কিন্তু ওড়িশার কেন্দ্রপাড়া কেন্দ্রের বিশিষ্ট BJD নেতা জয় পন্ডা বর্তমানে বিজেপিতে।

৫) গত নির্বাচনে মহারাষ্ট্রের ১৭টি কেন্দ্রের মধ্যে ৮টি আসনে জিতেছিল বিজেপি। বাকি ৯টি আসনে জয়লাভ করে শিবসেনা। এবারের নির্বাচনে কংগ্রেসের প্রার্থী তালিকায় বেশ কয়েকজন হেভিওয়েট প্রার্থী রয়েছেন। যেমন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মিলিন্দ দেওড়া, বলিউড অভিনেত্রী উর্মিলা মাতন্ডকর, বলিউড তারকা সঞ্জয় দত্তের বোন পুনম দত্ত।

৬) ২০১৪ সালে মোদী ঝড়ে উত্তরপ্রদেশে ১৩টি আসনের মধ্যে ১২টি জিতেছিল বিজেপি। এবারের নির্বাচনে বিজেপিকে হারাতে এই প্রথম BSP-SP-RLD জোট বেঁধেছে। কানপুর কেন্দ্র থেকে বিজেপির প্রবীণ নেতা মুরলী মনোহর যোশীকে প্রার্থী না করায় দলীয় কর্মীদের একাংশের মধ্যে ক্ষোভ রয়েছে।


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন