পুলমওয়ায় নৃশংস জঙ্গিহানার পর দেশের বিভিন্ন প্রান্তে কাশ্মীরিদের ওপর বারবার আক্রমণ করা হচ্ছে। গতকাল দিল্লি থেকে হরিয়ানার পথে ট্রেনের মধ‍্যেই জনতার আক্রমণের শিকার হন তিন কাশ্মীরি শাল বিক্রেতা তাহির (৩০), নাদীম (২২) এবং গুলজার(৩৫)। এঁদের একজন মাথায় গুরুতর আঘাত পেয়েছেন, অপর দুজনের মুখে লেগেছে। তিনজনকেই পশ্চিম দিল্লির একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার খবর পেয়েই হাসপাতালে পৌঁছান সিপিআইএম নেত্রী বৃন্দা কারাত, সুভাষিণী আলি, কে এম তিওয়ারি সহ অন‍্যান‍্য নেতৃত্ব।

গত দশ বছর ধরেই শীতের সময়ে কাশ্মীর থেকে শাল, স্টোল, উলের বিভিন্ন জিনিসপত্র বিক্রি করার জন্য দিল্লি আসেন তাহিররা। কোনো বছরই এরকম ঘটনা ঘটেনি। গতকাল ট্রেনের মধ্যে আচমকাই কিছু ব‍্যক্তি তাহিরদের উদ্দেশ্য করে খারাপ কথা বলতে শুরু করে। কাশ্মীরিরাই ভারতীয়দের মেরেছে বলে অভিযোগ করতে থাকে ট্রেনের ব‍্যক্তিরা। 

সিপিআইএম নেতৃত্বের সামনে তাহির তাঁদের এই ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথা বর্ণনা করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, "ট্রেনের মধ্যে কিছু ব‍্যক্তি আমাদের ‘কাশ্মীরি’ বলে গালাগালি করতে শুরু করে। আমাদের মা-বোনদের গালাগালি, অভিশাপ দিতে থাকে। আমি তাদের বোঝাতে গেলে আচমকা পাশের কম্পার্টমেন্ট থেকে আরো কিছু জন এসে আমাদের ওপর বেল্ট দিয়ে আক্রমণ করতে শুরু করে।" আক্রমণের তীব্রতা এতোটাই ছিল যে তিনজনের কেউ ভাবতেই পারেনি তাঁরা বেঁচে যাবে। তাহিরের কথায়, "আমি বিশ্বাস করতে পারছি না আমি বেঁচে আছি।"

বারবার ফোন করা সত্ত্বেও পুলিশের পক্ষ থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া করা হয়নি বলে অভিযোগ করে তাহির। অবশেষে বিধায়ক তারিগামি তাঁদের সাহায্যের আশ্বাস দেন।

 


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন