উত্তরপ্রদেশের লখনউতে খুন বিজেপি নেতা প্রত্যিশমানী ত্রিপাঠী। ৩৪ বছর বয়স্ক ওই বিজেপি নেতাকে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে খুন করা হয়েছে। মঙ্গলবার লখনউ পুলিশ একথা জানিয়েছে। এই ঘটনা যোগী আদিত্যনাথ পরিচালিত বিজেপি সরকারের আমলে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলার গুরুতর অবনতিকেই আরও একবার চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিলো বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

সোমবার রাত্তিরে স্থানীয় বাদশানগর অঞ্চলে তাঁকে অজ্ঞাতপরিচয় কিছু ব্যক্তি ঘিরে ধরে। তাদের সকলের কাছেই ধারালো অস্ত্র ছিলো। ধারালো অস্ত্রের এলোপাথাড়ি আঘাতে কিছুক্ষণের মধ্যেই মাটিতে লুটিয়ে পড়েন ওই বিজেপি নেতা।

কিছুক্ষণ পরে গুরুতর আহত অবস্থায় ওই বিজেপি নেতাকে উদ্ধার করে স্থানীয় কিং জর্জ মেডিক্যাল ইউনিভার্সিটিতে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই ভোর ৩টে নাগাদ তিনি মারা যান।

আরও পড়ুন - 

নিহত বিজেপি নেতার পরিবার সূত্রে জানা গেছে, সম্প্রতি এক ইভটিজিং-এর ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রত্যিশমানী স্থানীয় কিছু মানুষের সঙ্গে বিবাদে জড়িয়েছিলেন।পরিবারের পক্ষ থেকে এই ঘটনায় পাঁচ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

এই ঘটনার পরেই প্রত্যিশমানী ত্রিপাঠীর সমর্থকরা হাসপাতালের বাইরে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ দেখায় এবং পুলিশ বিরোধী শ্লোগান দেয়।নিহত বিজেপি নেতার সমর্থকদের বক্তব্য অনুসারে কিছুদিন আগেই প্রত্যিশমানী পুলিশি নিরাপত্তা চেয়ে আবেদন করেছিলেন। কিন্তু পুলিশ সেই আবেদনে সাড়া দেয়নি। তাঁরা অবিলম্বে লখনউ-এর এস এস পি কালানিধি নৈথানীকে বরখাস্ত করার দাবী জানিয়েছেন।


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন