Colors: Purple Color

বিরাট আর্থিক ক্ষতির মুখে পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক। ৩১ মার্চ শেষ হওয়া আর্থিক বছরের শেষ ত্রৈমাসিকে এই ব্যাঙ্কের ক্ষতির পরিমাণ ১৩,৪১৬.৯১ কোটি টাকা। প্রসঙ্গত, পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের নাম জড়িয়ে আছে নীরব মোদী, মেহুল চোকসির প্রায় সাড়ে ১২ হাজার কোটি টাকা আর্থিক দুর্নীতির সঙ্গে।

কর্ণাটকের নির্বাচন পর্ব শেষ হতেই আসতে শুরু করলো এক্সিট পোল-এর ফলাফল। যে ফলাফল অনুসারে কর্ণাটক বিধানসভা নির্বাচনে কোনও দলই একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাচ্ছে না। প্রবল সম্ভাবনা হাং অ্যাসেম্বলি হবার। একাধিক এক্সিট পোলের ফলাফলে একক বৃহত্তম দল হিসেবে দেখানো হয়েছে কংগ্রেসকে। আবার কয়েকটি এক্সিট পোলের ফলাফলে এগিয়ে রাখা হয়েছে বিজেপিকে। তবে সব এক্সিট পোলের ফলাফল অনুসারে – এবারে কর্ণাটকে নির্ণায়ক শক্তি হিসেবে উঠে আসতে চলেছে জেডি(এস)।

ফলাফলের গতিপ্রকৃতি দেখে একটা সময় মনে হয়েছিলো কর্ণাটকে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে চলেছে বিজেপি। যদিও কিছুক্ষণের মধ্যেই পরিষ্কার হয়ে যায় কর্ণাটক বিধানসভা ২০১৮ নির্বাচনের ফলাফল অনুসারে ত্রিশঙ্কু হতে চলেছে।

কর্ণাটক বিধানসভা নির্বাচনে বিকেল ৩টে পর্যন্ত ভোটদানের হার ৫২.৪০%। নির্বাচন কমিশন সূত্রে একথা জানা গেছে। শনিবার কর্ণাটক বিধানসভার ২২৪ আসনের মধ্যে ২২২ আসনে ভোটগ্রহণ চলছে। বেঙ্গালুরু সংলগ্ন জয়ানগর এবং রাজারাজেশ্বরী কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত আছে। কর্ণাটকে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে হলে ১১২টি আসন পেতেই হবে। আগামী ১৫ মে কর্ণাটকে ভোটগণনা হবে।

একক সংখ্যাগরিষ্ঠতার থেকে কিছু কম আসনেই থেমে যেতে হচ্ছে বিজেপিকে। যদিও বিজেপির একক বৃহত্তম দল হওয়া তাতে আটকাচ্ছে না। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত কর্ণাটক বিধানসভায় বিজেপি জয়ী হয়েছে ৯৩ আসনে। এগিয়ে রয়েছে ১১ আসনে। কংগ্রেসের ঝুলিতে গেছে ৬৫ আসন। কংগ্রেস এগিয়ে রয়েছে ১৩ আসনে। জে ডি (এস) জয়ী হয়েছে ২৭ আসনে। এগিয়ে আছে ১০ আসনে। অন্যান্যরা ৩টি আসনে জয়ী হয়েছে। ২২৪ আসন বিশিষ্ট কর্ণাটক বিধানসভায় ভোট হয়েছে ২২২ আসনে। নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠ হবার জন্য প্রয়োজন ১১৩ আসন। যার থেকে কিছু কম আসনে থেমে যাবার সম্ভাবনা বিজেপির।

বালগঙ্গাধর তিলক ‘সন্ত্রাসবাদের জনক’। রাজস্থানে অষ্টম শ্রেণীর ইতিহাস বইয়ের পাতায় এরকমই লেখা আছে। সেখানকার অষ্টম শ্রেণীর ছাত্ররা পড়ছে স্বাধীনতা সংগ্রামী বালগঙ্গাধর তিলক 'সন্ত্রাসবাদের জনক'। রাজস্থানের প্রাইভেট ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের অষ্টম শ্রেণীর ইতিহাস বইয়ে এই কথা লেখা হয়েছে। রাজস্থানের প্রাইভেট স্কুলগুলি রাজস্থান বোর্ড অফ সেকেন্ডারি এডুকেশন দ্বারা পরিচালিত।

“তোমরা যে স্মারক দিয়েছিলে তাতে আমার বাবার কোনও গন্ধ নেই। বদলে রক্তের গন্ধ আছে। যে গন্ধের কোনও অভিজ্ঞতা আমার নেই।...

আমার বাবা সেদিন আমার ছোটোভাইয়ের জন্য স্কুলের পোশাক আনতে গেছিলো। কিন্তু সেদিন আমার বাবা বাড়ি ফেরেনি। পরের দিন লাল কাপড়ে ঢেকে আমার বাবা বাড়ি ফিরেছিলো।...

কেন তোমরা আমার পরিবারের সুখ কেড়ে নিলে? কেন তোমার দলের লোকরা আমার বাবাকে মারলো?”

রাত পোহালেই কর্ণাটক বিধানসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। ২২৪ আসন বিশিষ্ট বিধানসভায় ভোটগ্রহণ হবে ২২২ আসনে। একটি আসনে বিজেপি প্রার্থীর মৃত্যুতে ও অন্য একটি আসনে কিছু অনিয়মের কারণে ভোটগ্রহণ স্থগিত রয়েছে। ভোটের ফলাফল প্রকাশিত হবে আগামী ১৫মে। কর্ণাটকের বিধানসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে একনজরে দেখে নেওয়া যাক মূল দুই প্রতিপক্ষ কংগ্রেস ও বিজেপি এবং জেডি(এস) তাদের নির্বাচনী ইস্তাহারে ঠিক কী কী প্রতিশ্রুতি দিল।

জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন