Colors: Purple Color

কেন্দ্রীয় কৃষি আইনের বিরুদ্ধে কৃষকদের আন্দোলনকে সমর্থন জানাতে প্রতিটি রাজ‍্যে বিক্ষোভ সমাবেশ করার ডাক দিল বাম দলগুলো। এক যৌথ বিবৃতিতে পাঁচটি বাম দল - সিপিআইএম, সিপিআই, সিপিআইএমএল, আরএসপি, এআইএফবি - কৃষকদের এই আন্দোলনে তাদের সম্পূর্ণ সমর্থন এবং সংহতি প্রকাশ করেছে। দলগুলো তাদের রাজ‍্য ইউনিটকে এই আন্দোলনের সমর্থনে সমাবেশ করার আহ্বান জানিয়েছে।

"ইডি এবং সিবিআইকে সীমান্তে পাঠিয়ে দেওয়া উচিত। ওখানে গিয়ে জম্মু-কাশ্মীরে ঢুকতে চাওয়া জঙ্গিদের মোকাবিলা করুক তারা।" কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন বিজেপিকে আক্রমণ করার উদ্দেশ্যে দলীয় মুখপত্র 'সামনা'-তে এই মন্তব্য করেছে শিবসেনা। মুখপত্রে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে কৃষকদের আন্দোলনকে সমর্থন করে বলা হয়েছে প্রচন্ড শীতে কৃষকদের ওপর জলকামান চালানো নিষ্ঠুরতার পরিচয়।

গত সপ্তাহেই ঘূর্ণিঝড় 'নিভার'-এর তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড হয়েছিল তামিলনাড়ু ও পুদুচেরি। সেই ক্ষত সেরে ওঠার আগেই শিয়রে নতুন বিপদ উপস্থিত। আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে খবর, বঙ্গোপসাগরে তৈরি হচ্ছে নতুন একটি ঘূর্ণিঝড়। যার প্রভাব পড়বে দক্ষিণ তামিলনাড়ু ও কেরলে। এই দুটি জায়গার বেশ কয়েকটি জেলায় জারি করা হয়েছে লাল সর্তকতা। কেরলে ইতিমধ্যেই বৃষ্টি শুরু হয়েছে।

গত পাঁচ দিন ধরে চলা কৃষক বিক্ষোভের জেরে দিল্লি কার্যত অবরুদ্ধ। দিল্লিগামী একাধিক সীমান্ত অঞ্চলে সমস্ত প্রশাসনিক বাধা উপেক্ষা করে কৃষক বিক্ষোভ চলছে। এর মাঝেই সোমবার সকালে কৃষিমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে বসলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। কৃষকরা অমিত শাহের আবেদন প্রত্যাখ্যান করার পর শেষ ২৪ ঘণ্টায় এই নিয়ে দ্বিতীয়বার কৃষিমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করলেন তিনি।

এবার সরকারের অভ্যন্তরেই কৃষি আইন বাতিলের জোরালো দাবি উঠলো। কেন্দ্র সরকার এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে অবিলম্বে বিতর্কিত তিনটি কৃষি আইন প্রত‍্যাহার করার আহ্বান জানিয়েছে এনডিএ সরকারের জোট শরিক রাষ্ট্রীয় লোকতান্ত্রিক পার্টি (আরএলপি)। নইলে জোট ছেড়ে বেরিয়ে যাওয়ার হুঁশিয়ারিও দিয়েছে দলটি।

বিজেপি সরকারের কৃষকদের জন্য কোনো ভাবনা নেই, তাদের ভাবনা শুধু কর্পোরেটদের নিয়ে। রবিবার সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে একথা জানিয়েছেন উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ও সমাজবাদী পার্টির সভাপতি অখিলেশ যাদব।

দল সবসময় হিন্দু সম্প্রদায়ের ব‍্যক্তিকেই টিকিট দেবে, তা সে লিঙ্গায়েত, কুরুবা, ভোক্কালিগা যেই হোক না কেন। কিন্তু মুসলিম সম্প্রদায়ের কোনো ব‍্যক্তিকে কখনোই টিকিট দেবে না। কর্ণাটকের মন্ত্রী তথা‌ বিজেপি নেতা ঈশ্বরাপ্পার এই বিতর্কিত মন্তব্য নিয়ে তীব্র সমালৈচনা শুরু হয়েছে জাতীয় রাজনীতিতে।

কৃষি-বিরোধী আইনের বিরুদ্ধে আন্দোলনরত কৃষকদের সাথে "জঙ্গীদের মতো ব‍্যবহার করা হচ্ছে"।‌ তাঁদের "খালিস্তানী" তকমা দেওয়া হচ্ছে। সমস্ত কৃষকদের জন্য এটা অপমান। কৃষকদের 'দিল্লি চলো' অভিযানকে সমর্থন করে রবিবার কেন্দ্র সরকারকে আক্রমণ করে একথা বললেন শিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউত।

জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন