সিপিআইএম লিবারেশন একটা আলাদা রাজনৈতিক দল। তাদের যে কোনো মূল্যায়ন থাকতেই পারে। কিন্তু আমাদের রাজ্যের বামপন্থীদের সেই মূল্যায়ন না। রাজ্যের বামপন্থীরা মনে করে বিজেপি প্রকাশ্যে সাম্প্রদায়িকতার মদতদাতা। কিন্তু আমরা দেখেছি তৃণমূল কংগ্রেস প্রতিযোগিতামূলক সাম্প্রদায়িকতা করে। তাঁরা সরকারে আছে। তাঁরাই তো হাতে ধরে বিজেপিকে বঙ্গের বুকে নিয়ে এসেছিলো। জ্যোতিবাবু বারবার বলতেন - তৃণমূলের সবথেকে বড়ো অপরাধ তাঁরা বিজেপিকে হাতে ধরে বাঙলায় নিয়ে এসেছে। এটা আমরা ভুলে যেতে পারি না। আমাদের এটা মনে রাখতে হয়। আমরা বারেবারেই দেখেছি তৃণমূল বিজেপির সঙ্গে বোঝাপড়া করে। এটা বুঝে নিতে হবে তৃণমূল বিজেপির মধ্যে সম্পর্ক আছে। সেই সম্পর্ককে বাদ দিয়ে আমরা চলতে পারিনা। রবিবার এক সাংবাদিক সম্মেলনে একথা জানিয়েছেন বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু।

অধীর চৌধুরীকে মুখ্যমন্ত্রীর মুখ করে নির্বাচন লড়ার প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু জানান - কংগ্রেস একটা আলাদা দল। কংগ্রেস যদি কিছু বলে তা বলার স্বাধীনতা তাদের আছে। তবে আমাদের সঙ্গে যে দুবার কংগ্রেসের আলোচনা হয়েছে তাতে এই প্রসঙ্গ ওঠেনি। 

এদিন আলিমুদ্দিন স্ট্রীটে অনুষ্ঠিত ১৬ বামদলের বৈঠক প্রসঙ্গে তিনি জানান – নির্বাচন প্রসঙ্গে বামপন্থী দলের সঙ্গে কংগ্রেসের যে সভা হয়েছে তা নিয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়। নির্বাচন সংক্রান্ত বিষয়ে বাকি আলোচনা আগামী ২৬ নভেম্বর দেশব্যাপী ধর্মঘটের পরে হবে।

বামপন্থী কর্মীদের দলত্যাগ প্রসঙ্গে এদিন বিমান বসুকে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান - যারা আদর্শ নিয়ে রাজনীতি করে না তাদের মাঝে এরকম বিচ্যুতি হতে পারে। কিছু করার নেই।

এদিন বর্ষীয়ান বাম নেতা আরও জানান - আগামী ২৬ নভেম্বরের ধর্মঘট ঘিরে যে প্রচার চলছে তার অংশ হিসেবে আজ বিকেল ৪টেয় ব্যারাকপুর থেকে টিটাগড় এক পদযাত্রা হবে। আগামী ২৩ নভেম্বর ধর্মঘটের সমর্থনে বিভিন্ন ট্রেড ইউনিয়নের ডাকে ধর্মতলা লেনিন মূর্তির সামনে থেকে হেদুয়া পর্যন্ত মিছিল হবে। ১৬ দলের পক্ষ থেকে এই মিছিলে অংশ গ্রহণ করা হবে। আগামী ২৬ তারিখ ধর্মঘটের দিন সকাল সাড়ে দশটায় এন্টালী বাজারের সামনে মিলিত হয়ে সেখান থেকে মিছিল হবে।

দলীয় কর্মসূচি প্রসঙ্গে তিনি বলেন - আগামী ৬ ডিসেম্বর বাবরি ধ্বংসের দিনে এক সভার ডাক দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও ১০ ডিসেম্বর ইন্টারন্যাশনাল হিউম্যান রাইটস ডে এবং ১৮ ডিসেম্বর ইন্টারন্যাশনাল মাইনরিটি ডে পালন করা হবে।

ভোটার তালিকা প্রসঙ্গে এদিন বিমান বসু জানিয়েছেন – ভোটার লিস্ট দিয়ে নির্বাচনের কাজ শুরু হয়। এবারেও কাজ শুরু হয়ে গেছে। ১৮ নভেম্বর থেকে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে ফাইলিং-এর কাজ। ১৫ জানুয়ারি চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ হবে। আগে বুথ ছিলো ৭৮৮০৪। এবার বুথ বেড়েছে। এখন বুথের সংখ্যা ৭৮৯০৩। চূড়ান্ত ভোটার তালিকার পরে এই সংখ্যা বাড়তেও পারে। এই সময় যথাযথ গুরুত্ব দিয়ে ভোটার তালিকার কাজ করতে হবে।


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন