সাগর দত্ত হাসপাতালকে কোভিড হাসপাতাল করার বিরোধিতায় দিনভর দফায় দফায় উত্তেজনা ছড়ালো কামারহাটিতে। এদিন সকালে হাসপাতাল সুপারের কাছে প্রতিবাদ জানাতে যাওয়া স্থানীয় বাসিন্দাদের ওপর স্থানীয় কিছু যুবক লাঠি নিয়ে হামলা চালায়। সিপিআই(এম) এবং কংগ্রেস সূত্রে জানানো হয়েছে আক্রমণকারীরা সকলেই স্থানীয় তৃণমূল কর্মী। যে ঘটনার জেরে এদিন বিকেলে বেলঘরিয়া পুলিশ থানার সামনে বিক্ষোভে শামিল হন বাম ও কংগ্রেস কর্মীরা।

এই ঘটনার প্রতিবাদে এদিন বিকেলে বাম ও কংগ্রেসের পক্ষ থেকে বেলঘরিয়া থানার সামনে দোষীদের গ্রেফতারের দাবীতে বিক্ষোভ দেখানো হয়৷ এই বিক্ষোভ চলাকালীন পুলিশ আবারও একদফা লাঠিচার্জ করলেও বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে পারেনি। ফের শুরু হয়ে যায় অবরোধ, বিক্ষোভ। বিক্ষোভে ছিলেন কামারহাটি কেন্দ্রের সিপিআই(এম) বিধায়ক মানস মুখার্জি, বিধায়ক তন্ময় ভট্টাচার্য, ডিওয়াইএফআই-এর সায়নদীপ মিত্র সহ বাম ও কংগ্রেসের স্থানীয় নেতৃত্ব। দীর্ঘ সময় বিক্ষোভ চলার পর অবিলম্বে দোষী তৃণমূল কর্মী, পুলিশ ও সিভিক পুলিশদের শাস্তির দাবীতে এক মিছিল সংগঠিত করা হয়।

      

সিপিআই(এম)-এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে এদিন বিকেলের লাঠিচার্জের ঘটনায় প্রভাত সরকার, কাশী ঘোষ, স্বপন রায়চৌধুরী সহ অনেকেই আহত হয়েছেন। এদিনের ঘটনায় সিপিআই(এম) চারজন এবং কংগ্রেসের দুজনকে আটক করা হলেও পরে তাঁদের ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।    

উল্লেখ্য, এদিন সকালে হাসপাতাল সুপারের কাছে যাওয়া প্রতিবাদকারী স্থানীয় বাসিন্দাদের বক্তব্য – তাঁদের ওপর যারা হামলা চালিয়েছেন তাঁরা সকলেই তৃণমূল কর্মী। এর প্রতিবাদে স্থানীয়দের একাংশ বিটিরোড অবরোধ করেন। সাগর দত্ত হাসপাতালের কাছেই এক তৃণমূল অফিসে ইট ছোড়েন, বিক্ষোভ দেখান। এরপরেই পুলিশ এসে বিক্ষোভকারীদের ওপর লাঠি চালায়।

   


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন