লকডাউন চলাকালীন পুলিশ কড়াকড়ি করুক কিন্তু বাড়াবাডি যেন না হয় তা রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে বারংবার বলা হচ্ছে। এখন সেই বার্তা মতোই কলকাতা পুলিশ মানুষকে বোঝানোর ওপর বেশি জোর দিয়েছে। কিন্তু লকডাউনের সুযোগ নিয়ে কদিন ধরেই অপ্রয়োজনীয় বেশ কিছু গাড়ি রাস্তায় চলছে। তাই শেষ পর্যন্ত পুলিশকে কড়া পদক্ষেপ নিতেই হচ্ছে।

আজ সকাল এগারোটা পর্যন্ত শহরে লকডাউন ভঙ্গকারী হিসেবে ৫১ টি গাড়িকে বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। এই সব গাড়ির চালক এবং যাত্রীদের বিরুদ্ধে ১৮৮ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। এছাড়াও লালবাজার সূত্রে খবর, গতকাল রাত থেকে আজ পর্যন্ত ৬৯৯ জন লকডাউন নির্দেশিকা ভঙ্গকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ১৮৮ ধারায় ১৫৫ টি এফআইআর দায়ের করা হয়েছে।

 

এই অবস্থায় কলকাতার পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা স্পষ্ট নির্দেশ দিলেন, যাঁর কাছে বৈধ ই-পাস আছে লালবাজার থেকে অনুমোদিত গাড়িগুলোকেও যথাযথ কারণ দেখাতে হবে, কেন তিনি সেই সময়ে গাড়ি নিয়ে বেরিয়েছেন। লকডাউন ভেঙে শহরের রাস্তায় অকারণে বেরোলেই কড়া পদক্ষেপের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে কর্তব্যরত পুলিশকর্মীদের। এই নিয়ম থেকে রেহাই পাবে না কেন্দ্র বা রাজ্য সরকার/সংবাদমাধ্যম অথবা পুলিশের বোর্ড লাগিয়ে ঘোরা গাড়িগুলিও।

পুলিশকে নম্রভাবে শক্ত হাতে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। নিয়ম ভাঙলে নির্দিষ্ট ব্যক্তির বিরুদ্ধে আইপিসি ধারা ১৮৮ ধারা লাগু করা হবে বলেও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে শহরের সব থানার অফিসার ইন চার্জকেও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে টি পি গার্ডদের সঙ্গে সহযোগিতা করতে। টি পি গার্ড থেকে যদি কোনও ব্যক্তি বা গাড়িকে লকডাউন অমান্য করার জন্যে থানায় পাঠানো হয়, অবিলম্বে যেন তাদের বিরুদ্ধে ১৮৮ ধারায় কেস রুজু করা হয়।

একইসঙ্গে পুলিশ কমিশনার শহরবাসীর কাছে এদিন এক আবেদনে পুনরায় লকডাউনের সময় সকলকে বাড়িতে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন।

 


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন