মায়ানমারে সেনার হাতে বন্দি স্বদেশীয় সাংবাদিকের মুক্তির আর্জি জাপানের
মায়ানমারে আটক জাপানি সাংবাদিক ই্‌উকি কিটাজুমিফাইল ছবি, জাপানি টাইমসের সৌজন্যে

মায়ানমারে সেনার হাতে বন্দি স্বদেশীয় সাংবাদিকের মুক্তির আর্জি জাপানের

জাপানের চিফ ক্যাবিনেট সেক্রেটারি কাতশুনোবু কাটো সাংবাদিকদের জানান, এই গ্রেপ্তারের কারণ জানিয়ে যত দ্রুত সম্ভব সাংবাদিককে মুক্তি দিতে হবে বলে জাপান সরকার মায়ানমারের সেনা প্রশাসনের কাছে আবেদন জানিয়েছে

মায়ানমারে গণতন্ত্রকামীদের উপর জুন্টা বাহিনীর অত্যাচারের খবর করতে গিয়ে গ্রেপ্তার হওয়া জাপানের সাংবাদিককে মুক্তি দেওয়ার আবেদন জানিয়েছে সেদেশের সরকার। জাপানের চিফ ক্যাবিনেট সেক্রেটারি কাতশুনোবু কাটো সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, এই গ্রেপ্তারের কারণ জানিয়ে যত দ্রুত সম্ভব হয় সাংবাদিককে মুক্তি দিতে হবে বলে জাপান সরকার মায়ানমারের সেনা প্রশাসনের কাছে আবেদন জানিয়েছে।

ই্‌উকি কিটাজুমি নামক এক ফ্রিল্যান্স সাংবাদিক বর্তমানে ইয়ঙ্গনে কর্মরত ছিলেন। এর আগে নিক্কেই বিসনেজ নিউজপেপারে কাজ করতেন তিনি। শুধু গ্রেপ্তার হওয়া সাংবাদিকের সুরক্ষাই নয়, মায়ানমারে অবস্থিত অন্যান্য জাপানি নাগরিকের সুরক্ষার দেওয়ার আবেদনও জানানো হয়েছে।

জাপানের স্থানীয় টিভি চ্যানেলে দেখা গিয়েছে, কিতাজুমিকে এক বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। তাঁকে ফেব্রুয়ারির শেষের দিকে গ্রেপ্তার করা হয়। এদিকে, বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো জাপানও মায়ানমারে সেনার এই অত্যাচারের তীব্র নিন্দা করেছে।

উল্লেখ্য, ২৩ হাজার বন্দিকে নববর্ষ উপলক্ষে মুক্তি দেওয়া হয়। কিন্তু তার মধ্যে গণতন্ত্রকামী আন্দোলনকারীরাও রয়েছে কি না, তা এখনও স্পষ্ট নয়। সম্প্রতি অনেকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে জুন্টা সরকার। সেই তালিকায় রয়েছেন ৮০ জন চিকিৎসকও। তাঁদের বিরুদ্ধে শান্তিভঙ্গের অভিযোগ এনে পলাতক ঘোষণা করা হয়েছে। পাল্টা স্বাস্থ্যকর্মীরাও জানিয়েছেন, সামরিক শাসনে কাজে যোগ দেবেন না তাঁরা।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.