বোলসোনারো বিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল ব্রাজিল

ক্রমাগত কমছে প্রেসিডেন্টের জনপ্রিয়তা। গত মাসে ৬% জনপ্রিয়তা কমেছে বলে দাবি বিশ্লেষকদের। সম্প্রতি ব্রাজিলের সবকটি বড় শহরের মিউনিসিপ্যালিটি ভোটে শোচনীয় পরাজয় হয়েছে প্রেসিডেন্ট সমর্থিত প্রার্থীদের।
বোলসোনারো বিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল ব্রাজিল
ব্রাজিলে বোলসোনারো বিরোধী বিক্ষোভছবি ট্যুইটার ভিডিও থেকে

ব্রাজিলের বড় বড় শহরগুলি আপাতত প্রেসিডেন্ট জাইরে বলসোনারো বিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল। চরম দক্ষিণপন্থী বলসোনারো “লাতিন আমেরিকার ট্রাম্প” নামেই পরিচিত। মূলত রিও ডি জেনেরিও, সাও পাওলোর মতো ব্রাজিলের বড় বড় শহরে মানুষ পথে নেমেছে প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে।

তাঁদের দাবি প্রেসিডেন্টকে ইমপিচমেন্ট করতে হবে। করোনা মহামারী মোকাবিলায় সম্পূর্ণ ব্যর্থ বলসোনারোর প্রশাসন। করোনা ভাইরাসে ব্রাজিলে মৃত্যু সংখ্যা ইতিমধ্যেই ২ লক্ষ ছাড়িয়েছে। দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে শয্যা সংখ্যা থেকে শুরু করে অক্সিজেনের অভাব চরমে। সবচেয়ে খারাপ অবস্থা উত্তর ব্রাজিলের শহরগুলিতে।

এই পরিস্থিতিতে দক্ষিণপন্থী রাজনৈতিক দলেরাও বলসোনারোর বিরুদ্ধে পথে নেমেছে- অথচ এক সময় তারাই বলসোনারোকে সমর্থন করেছিল। শুধু তাই নয় এদের সমর্থকদের একাংশকে বামপন্থী দলগুলোর প্রতিবাদেও অংশ নিতে দেখা যাচ্ছে।

ক্রমাগত কমছে প্রেসিডেন্টের জনপ্রিয়তাও। গত ডিসেম্বর মাসেই ৬% জনপ্রিয়তা কমেছে বলে দাবি ব্রাজিলের অধিকাংশ রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের। সম্প্রতি ব্রাজিলের সবকটি বড় শহরের মিউনিসিপ্যালিটি ভোটে শোচনীয় পরাজয় হয়েছে প্রেসিডেন্ট সমর্থিত প্রার্থীদের।

শহরের রাস্তায় গাড়ির হর্ণ বাজিয়ে বিক্ষোভকারীরা মিছিল করছে। সংখ্যাটা যেভাবে বাড়ছে তাতে যথেষ্ট বেগ পেতে হচ্ছে বলসোনারোর প্রশাসনকে। এক তরুণ বিক্ষোভকারীর কথায়- “ভোট দিয়েছিলাম প্রেসিডেন্টের পক্ষে, কারণ ওঁর পরিকল্পনা আমার ভালো লেগেছিল। কিন্তু করোনা মহামারীকে উনি যেভাবে উপেক্ষা করেছেন- মেনে নেওয়া যায় না।”

প্রসঙ্গত- করোনা মহামারীর শুরুতে খুব একটা গুরুত্ব দেননি বলসোনারো। পরিস্থিতি ক্রমশই হাতের বাইরে চলে যায়। এমনি নিজেও করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন। সুস্থ হয়েই ভ্যাক্সিন নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে বসেছিলেন। ভ্যাক্সিন নিলে মহিলাদের গোঁফ ওঠে বলেও কটাক্ষ করেছিলেন।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in