মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইরানে করোনায় আক্রান্ত দের মৃত্যুমিছিল অব্যাহত। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী ৪ হাজার ৪৭৪ জনের মৃত্যু হয়েছে সেখানে। আক্রান্তের সংখ্যা ৭১ হাজারের গণ্ডি ছাড়িয়ে গেছে। ইরানের এই বিপর্যয়ের সময় আমেরিকার পক্ষ থেকে সাহায্যের প্রস্তাব পাঠানো হলেও সেই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে ইরান।

করোনা সংক্রমণ এখন অনেকটাই কাটিয়ে উঠেছে বলে দাবি করা হচ্ছে ইরানে। প্রায় এক মাস লকডাউনের পর গত শনিবার থেকে ইরানে বিভিন্ন সরকারি দপ্তর খুলে দেওয়া হয়েছে। গত ৪ এপ্রিল এই সংক্রান্ত নির্দেশ জারি করা হয়েছিলো।

ইরানের সরকারি সূত্র অনুসারে, তেহরান শহরের সমস্ত সরকারি দপ্তর খুলেছে শনিবার থেকেই। যেসব মহিলাদের ছোটো বাচ্চা আছে তাঁদের ঘর থেকে কাজ করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। একইভাবে রাজধানী শহরের বাইরের বিভিন্ন অঞ্চলের ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান শনিবার থেকেই খুলে গেছে।

তেহরানের বিভিন্ন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানকে আগামী শনিবার থেকে ব্যবসা শুরু করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। যদিও তার আগে সরকারের স্বাস্থ্য দপ্তরের কাছ থেকে সোশ্যাল ডিস্ট্যান্সিং বিধির বিষয়ে ছাড়পত্র নিতে হবে। ইরানি সংবাদমাধ্যম ইরনা জানিয়েছে, করোনা ভাইরাস জনিত কারণে ইরানের বিভিন্ন কারাগার থেকে ৭০ হাজার বন্দীকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ঠিক কত জন মারা গেছে তা নিয়ে নানা বিতর্ক দানা বেধেছে। বেসরকারি সূত্রে দাবি করা হচ্ছে যে ৯ হাজার ১০০ জন প্রাণ হারিয়েছেন। আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৪২ হাজারের বেশি মানুষ। তবে ওই দেশে সরকার এই তথ্য মানতে নারাজ।

 


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন