নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন বা সিএএ, এনআরসি, এনপিআর নিয়ে গত দু'মাস ধরেই দেশ উত্তাল। এরই মাঝে আগামী সপ্তাহে দু'দিনের জন্য ভারত সফরে আসছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ভারতে এসে ধর্মীয় স্বাধীনতার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সাথে কথা বলবেন তিনি। শুক্রবার হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকে একথা জানানো হয়েছে।

শুক্রবার এক কনফারেন্স কলের মাধ্যমে সাংবাদিক বৈঠক করে হোয়াইট হাউসের এক উচ্চপদস্থ আধিকারিক জানান, "প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প গণতন্ত্রের পরম্পরা এবং ধর্মীয় স্বাধীনতা নিয়ে নিজের মতামত প্রকাশ করবেন। তিনি এই বিষয়গুলো বিশেষ করে ধর্মীয় স্বাধীনতার বিষয়টি উত্থাপন করবেন, যা ভারতের ক্ষেত্রেও অত‍্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।"

 

তিনি আরও জানান, "ভারতের গণতান্ত্রিক ঐতিহ্যের প্রতি আমাদের গভীর শ্রদ্ধা রয়েছে এবং এই ঐতিহ্য ধরে রাখতে ভারতকে উৎসাহিত করবো আমরা। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে মনে করিয়ে দিতে পারেন যে, ভারতীয় সংবিধানে ধর্মীয় স্বাধীনতা, ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের প্রতি যে সম্মানের উল্লেখ রয়েছে তা যেন বজায় থাকে। ট্রাম্পের কাছেও এই বিষয়গুলো অত‍্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আলোচনায় এগুলো উঠে আসবে বলে মনে করছি আমি।" নাগরিকত্ব আইন ও দেশজুড়ে প্রস্তাবিত এনআরসি নিয়ে ভারতে যে বিক্ষোভ চলছে তা নিয়ে উদ্বিগ্ন আমেরিকা বলে জানান ওই আধিকারিক।

মার্কিন আধিকারিকের কথায়, ধর্মীয়, ভাষাগত ও সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্য সত্ত্বেও ভারতের গণতান্ত্রিক ভিত অত‍্যন্ত মজবুত। প্রকৃতপক্ষে, পৃথিবীর প্রধান‌ চারটি ধর্মের জন্মস্থান ভারত।

"গত বছর নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পর প্রথম ভাষণে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ভারতের ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের কিভাবে অগ্রাধিকার দেবেন সে সম্পর্কে বলেছিলেন। অবশ‍্যই আইন মেনে কীভাবে ধর্মীয় স্বাধীনতা ও সমানাধিকার বজায় রাখবে ভারত, তা দেখতে গোটা বিশ্ব নজর রেখেছে ভারতের ওপর", জানান ওই মার্কিন আধিকারিক।

আগামী সোমবার ও মঙ্গলবার দু'দিনের জন্য ভারত সফরে আসছেন সস্ত্রীক ডোনাল্ড ট্রাম্প। আহমেদাবাদে বিশ্বের বৃহত্তম ক্রিকেট স্টেডিয়াম উদ্বোধন সহ একাধিক কর্মসূচি রয়েছে তাঁর। তাঁর এই গুজরাট সফরের ১২০ কোটি টাকা ব‍্যয় করছে গুজরাট সরকার।


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন