Punjab: রাহুলের প্রস্তাবে অম্বিকা সোনির 'না' - পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রীর নাম নিয়ে অব্যাহত ধোঁয়াশা

একাধিক নাম সামনে এলেও বিভিন্ন গোষ্ঠীর চাপে সেই নামে চূড়ান্ত সিলমোহর দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। গতকাল গভীর রাতে কে সি বেণুগোপাল, অম্বিকা সোনির সঙ্গে রাহুল গান্ধীর বৈঠক হলেও তিনি এই পদ গ্রহণে অসম্মতি জানান।
Punjab: রাহুলের প্রস্তাবে অম্বিকা সোনির 'না' - পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রীর নাম নিয়ে অব্যাহত ধোঁয়াশা
অম্বিকা সোনি ও রাহুল গান্ধীফাইল ছবি

ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং-এর ইস্তফার পর পাঞ্জাবের নতুন মুখ্যমন্ত্রী কে হবেন তা নিয়ে এখনও ধোঁয়াশা। সূত্র অনুসারে একাধিক নাম সামনে এলেও বিভিন্ন গোষ্ঠীর চাপে সেই নামে চূড়ান্ত সিলমোহর দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। গতকাল গভীর রাতে কে সি বেণুগোপাল, অম্বিকা সোনির সঙ্গে রাহুল গান্ধীর বৈঠক হলেও অম্বিকা সোনি মুখ্যমন্ত্রী পদ গ্রহণে অসম্মতি জানিয়েছেন।

একটি সূত্র অনুসারে দাবি করা হয়েছিলো সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে সুসম্পর্কের সুবাদে পাঞ্জাবের পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী হতে পারেন অম্বিকা সোনি। সেক্ষেত্রে একদিকে যেমন ৭৯ বছর বয়সী অমরিন্দর সিং-এর বিরোধ আটকানো যেত তেমনই অন্য গোষ্ঠীরও মুখ বন্ধ করা যেত। যদিও তিনি রাজী না হওয়ায় সেই সম্ভাবনায় ইতি পড়েছে।

অন্যদিকে কংগ্রেস নেতা সুনীল জাখরও মুখ্যমন্ত্রীত্বের দৌড়ে আছে। কংগ্রেস সূত্র অনুসারে দল নির্বাচনের আগে কোনো অ-শিখ মুখকে মুখ্যমন্ত্রী করতে ইচ্ছুক। মূলত আম আদমী পার্টির ক্রমবর্ধমান প্রভাব আটকাতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে বলে জানা গেছে।

কংগ্রেস সূত্র থেকে আরও জানা গেছে, নভজ্যোত সিং সিধু একজন শিখ এবং বর্তমানে তিনি পাঞ্জাব কংগ্রেসের প্রেসিডেন্ট। এর সঙ্গে যদি একজন অ-শিখ কোনো ব্যক্তিকে মুখ্যমন্ত্রী করা হয় সেক্ষেত্রে কংগ্রেস লাভবান হবে। এই হিসেবেই নাম উঠে এসেছে প্রতাপ সিং বাজওয়া এবং লুধিয়ানার সাংসদ রনভীত সিং বিট্টু।

সম্প্রতি পাঞ্জাবের কংগ্রেস বিধায়কদের মধ্যে থেকে প্রায় ৫০ জন সোনিয়া গান্ধীকে চিঠি লিখে অমরিন্দর সিং-এর প্রতি তাঁদের অনাস্থা জানান। এরপরেই তাঁকে পদত্যাগ করার নির্দেশ দেওয়া হয়। যদিও অমরিন্দর সিং-এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, তিনি অপমানিত বোধ করায় পদত্যাগ করছেন। তিনি আরও জানিয়েছেন, তাঁর হাতে সবসময়েই বিকল্প থাকে এবং তিনি সময়মতো সেই বিকল্প ব্যবহার করবেন।

গতকাল কংগ্রেস বিধায়কদলের বৈঠকে ৮০জন বিধায়কের মধ্যে ৭৮ জন জানিয়েছেন পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রীর বিষয়ে সোনিয়া গান্ধী যা সিদ্ধান্ত নেবেন তাই মেনে নেওয়া হবে। যদিও এই সিদ্ধান্তে সহমত জানাননি ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং এবং অন্য এক বিধায়ক। বৈঠকের পর হরিশ রাওয়াত জানান, দুটি বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যারমধ্যে একটি হল অমরিন্দর সিংকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন এবং সোনিয়া গান্ধী পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রীর বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন। গতকালের বৈঠকে কংগ্রেস হাইকম্যান্ডের পক্ষ থেকে হরিশ রাওয়াত ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন অজয় মাকেন এবং হরিশ চৌধুরী।

- with inputs from IANS

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.