Bihar: দুই কেন্দ্রে চলছে ভোটগ্রহণ - আরজেডি সরকার গঠন এখন সময়ের অপেক্ষা - দাবি লালুপ্রসাদের

দুই কেন্দ্রের উপনির্বাচন প্রসঙ্গে RJD সুপ্রিমো লালু প্রসাদ যাদব জানিয়েছেন, দুই কেন্দ্রেই বড়ো ব্যবধানে জয়ী হবে আরজেডি। নীতিশ কুমার এবং NDA-র এই দুই কেন্দ্রেই বড়ো ব্যবধানে পরাজিত হবে বলে তাঁর দাবি।
Bihar: দুই কেন্দ্রে চলছে ভোটগ্রহণ - আরজেডি সরকার গঠন এখন সময়ের অপেক্ষা - দাবি লালুপ্রসাদের
লালু প্রসাদ যাদবফাইল ছবি সংগৃহীত

শনিবার দেশের বিভিন্ন রাজ্যের পাশাপাশি বিহারের দুই আসনেও চলছে উপনির্বাচনের ভোটগ্রহণ। সকাল ৯টা পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুসারে বিহারের কুশেশ্বর আস্থান এবং তারাপুর কেন্দ্রে ভোট পড়েছে যথাক্রমে ৬.৪৫% এবং ৪%। দুই কেন্দ্রেই বিভিন্ন ভোটগ্রহণ কেন্দ্রের বাইরে ভোটারদের দীর্ঘ লাইন দেখা গেছে। এই দুই কেন্দ্রে মোট প্রার্থী আছেন ১৭ জন।

বিহারের দুই কেন্দ্রের উপনির্বাচন প্রসঙ্গে আরজেডি সুপ্রিমো লালু প্রসাদ যাদব জানিয়েছেন, এই দুই কেন্দ্রেই বড়ো ব্যবধানে জয়ী হবে আরজেডি। নীতিশ কুমার এবং এনডিএ-র বর্তমান সরকার এই দুই কেন্দ্রেই বড়ো ব্যবধানে পরাজিত হবে বলে তাঁর দাবি।

লালু প্রসাদের মতে এই মুহূর্তে আমাদের সঙ্গে ওদের তফাত খুব বেশি নয়। আমরা খুব সহজেই সংখ্যাগরিষ্ঠতায় পৌঁছে যেতে পারি। আমি নিশ্চিত জেডিইউ খুব শিগগীর ভেঙে যাবে। জেডিইউ-এর বিধায়করা জানেন যে নীতিশকুমারের সঙ্গে থেকে তাঁদের কোনো ভবিষ্যৎ নেই। তাঁরা সকলেই আরজেডিতে আসবেন। তেজস্বী যাদবের নেতৃত্বে আরজেডি সরকার গঠন এখন সময়ের অপেক্ষা। ২ নভেম্বর ফলাফল বেরোলেই সব স্পষ্ট হয়ে যাবে।

দ্বারভাঙার কুশেশ্বর আস্থান কেন্দ্রে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে আধা সামরিক বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। এই কেন্দ্রের কমপক্ষে ৬০ টি ভোটগ্রহণ কেন্দ্র বন্যা কবলিত অঞ্চলে হওয়ার কারণে ৩০টি নৌকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়াও অন্যান্য অঞ্চলের জন্য কমিশন ৮০টি ট্র্যাক্টরের বন্দোবস্ত করেছে।

তারাপুর কেন্দ্রে মোট ভোটগ্রহণ কেন্দ্রের সংখ্যা ৪০৬। যার মধ্যে ৫২টি কেন্দ্র নকশাল অধ্যুষিত এলাকায়। এই সব অঞ্চলেও আধা সামরিক বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। মুঙ্গের জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পাঁচটি সীমান্ত অঞ্চল সিল করে দেওয়া হয়েছে।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in