করোনা সংক্রমণ উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে উত্তপ্রদেশেও। এই অবস্থায় আপতকালীন অ্যাম্বুল্যান্স পরিষেবা জিভিকে-ইমারজেন্সি ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউট তাদের অ্যাডভান্সড লাইফ সাপোর্ট '১০৮' বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। রাজ্য সরকারের সঙ্গে বনিবনা না-হওয়া এবং সেরকম লাভ না-হওয়ার কারণে আগামী ১৬ অক্টোবর থেকে এই অ্যাম্বুল্যান্স পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়েছে। এমনকী, সংস্থার ১ হাজার কর্মীকে ছাঁটাইয়ের নোটিসও দেওয়া হয়েছে বলে খবর।

এই কর্মীদের মধ্যে ৫০০ জন চালক, ৪৬ জন খালাসি, ২৯ জন কল সেন্টার কর্মী, ৪০০ জন ইমার্জেন্সি মেডিক্যাল টেকনিশিয়ান এবং ৮ জন অফিসার রয়েছেন। সংস্থার ফান্ডের অভাবে গত কয়েকবছর ধরেই সমস্যার মধ্যে রয়েছে রাজ্যের অ্যাম্বুল্যান্স পরিষেবা। সংস্থার সঙ্গে রাজ্য সরকারের একটি চুক্তি সই করা হয়েছিল। চুক্তি অনুসারে সংস্থার পরিকাঠামো গঠনে সাহায্য করার কথা সরকারেরই। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে হঠাৎ করে কর্মীদের ছাঁটাইয়ের নোটিসে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে।

মহামারী পরিস্থিতিতে সংস্থার কর্মীরা দিনরাত এক করে কাজ করে গিয়েছেন। কিন্তু তাও তাঁদের হাতে এসে পৌঁছেছে ছাঁটাইয়ের নোটিস। সংস্থার এইচআর দপ্তরের মদন শর্মা জানিয়েছেন, পরিষেবা বন্ধ করার অনেকগুলো কারণ রয়েছে, যার মধ্যে অন্যতম অর্থের অভাব। রাজ্য সরকারের তরফে আসা অর্থের অভাবেই সংস্থার আজ এই অবস্থা। অনেক অনুরোধ করা সত্ত্বেও ঠিক সময়ে টাকা আসেনা রাজ্য সরকারের তরফে।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর গরিব মানুষদের সাহায্যার্থে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ ঘটা করে এই অ্যাম্বুল্যান্স পরিষেবার সূচনা করেছিলেন। মোট ১৫০ টি অ্যাম্বুল্যাম্স নিয়ে এই পরিষেবা শুরু হয়েছিল। কিন্তু আজ তা একেবারে মুখ থুবড়ে পড়ল। আর এর জন্য রাজ্যের বিজেপি সরকারকেই দুষছেন ভুক্তভোগীরা।


পিপলস রিপোর্টার এর সব খবর এখন Telegram-এও।
সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন এই লিঙ্কে - t.me/peoplesreporter 
সব খবর পেয়ে যান হাতের মুঠোয়, এক মুহূর্তে
গুজবে নয়, খবরে থাকুন পিপলস রিপোর্টারের সঙ্গে থাকুন

জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন