ক্রমশ লাগামছাড়া হয়ে উঠছে ভারতের করোনা পরিস্থিতি। ৩৪ লক্ষ ছুঁতে চললো দেশের মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। একদিনে রেকর্ড সংখ্যক মানুষ সংক্রমিত হয়েছেন এই মারণ ভাইরাসে। শুক্রবার সকালে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, শেষ ২৪ ঘন্টায় দেশে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে ৭৭,২৬৬ জন। দেশে বর্তমানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩৩,৮৭,৫০০ জন।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত সংক্রমণ মুক্ত হয়েছেন ২৫,৮৩,৯৪৮ জন। অ‍্যাক্টিভ কেসের সংখ্যা ৭,৪২,০২৩ জন। করোনা সংক্রমিত হয়ে ভারতে মারা গেছেন মোট ৬১,৫২৯ জন। শেষ ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ১০৫৭ জন এবং সুস্থ ঘোষণা করা হয়েছে ৬০,১৭৭ জনকে। দেশে কোভিড রোগীদের সুস্থ হয়ে ওঠার হার ৭৬.২৮ শতাংশ।

কেন্দ্রীয় সরকারের পরিসংখ্যান অনুসারে সর্বাধিক সংক্রমণের ঘটনা ঘটেছে মহারাষ্ট্রে, ৭,৩৩,৫৬৮ টি, শেষ ২৪ ঘন্টায় ১৪,৮৫৭ জনের শরীরে এই ভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়েছে। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে তামিলনাড়ু, সেখানে ৪,০৩,২৪২(+৫৯৮১) জনের শরীরে এই ভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়েছে। তৃতীয় স্থানে রয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশ, সেখানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩,৯৩,০৯০(+১০৬২১)। চতুর্থ স্থানে রয়েছে কর্ণাটক, সেখানে সংক্রমিতের সংখ্যা ৩,০৯,৭৯২(+৯৩৮৬) জন। পঞ্চম স্থানে উঠে এলো উত্তরপ্রদেশ, সেখানে সংক্রমিতের সংখ্যা ২,০৮,৪১৯(+৫৩৯১) জন। দিল্লিতে ১,৬৭,৬০৪(+১৮৪০) জন, পশ্চিমবঙ্গে ১,৫০,৭৭২(+২৯৯৭) জন ও বিহারে ১,২৮,৭৮০(+২০৬৬) জনের শরীরে এই সংক্রমণ মিলেছে। তেলেঙ্গানাতে ১,১৭,৪১৫(+২৯৩২) জন, আসামে ৯৮,৮০৭(+২০৩৬) জন, গুজরাটে ৯১,১৭৯(+১১৮৫) জন, ওড়িশায় ৯০,৯৮৬(+৩৩৮৪) জন, রাজস্থানে ৭৬,০১৫(+১৩৪৫) জন, কেরালায় ৬৬,৭৬১(+২৪০৬) জন, হরিয়ানাতে ৫৯,২৯৮(+১২৯৩) জন, মধ্যপ্রদেশে ৫৮,১৮১(+১৩১৭) জন, পাঞ্জাবে ৪৭,৮৩৬(+১৭৪৬) জন, জম্মু ও কাশ্মীরে ৩৫,১৩৫(+৬৫৫) জন, ঝাড়খন্ডে ৩৪,৩৯৬(+১৩৫০) জন, ছত্তিশগড়ে ২৫,৯৮৮(+১৪৩৮) জন, উত্তরাখণ্ডে ১৭,২৭৭(+৭২৮) জন, গোয়াতে ১৫,৪৮৩(+৪৫৬) জন, পুদুচেরিতে ১২,৪৩৪(+৫০৪) জন, ত্রিপুরায় ১০,৪১৪(+৫০৬) জন, মণিপুরে ৫,৭২৫(+১৪০) জন, হিমাচল প্রদেশে ৫,৫০১(+১৮০) জন, নাগাল‍্যান্ডে ৩,৭৮৪(+৬) জন, অরুণাচল প্রদেশে ৩,৬৩৩(+৭৮) জন, চন্ডীগড়ে ৩,৫৬৪(+১৮৮) জন, আন্দামান নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে ৩,০১৮(+৩৩) জন, লাদাখে ২,৪৯২(+৪১) জন, দাদরা নগর হাভেলি এবং দমন ও দিউতে ২,২৬৬(+৩৮) জন, মেঘালয়ে ২,১২৯(+৭৯) জন, সিকিমে ১,৫৪২(+৫৬) জন ও মিজোরামে ৯৭৪(+৭) জনের শরীরে সংক্রমণ পাওয়া গেছে।

মৃতের সংখ্যার বিচারে রাজ‍্যগুলির মধ্যে প্রথম রয়েছে মহারাষ্ট্র, এখনও পর্যন্ত মোট ২৩,৪৪৪(+৩৫৫) জন আক্রান্তের মৃত্যু হয়েছে রাজ‍্যে। তামিলনাড়ুতে ৬,৯৪৮(+১০৯) জন, কর্ণাটকে ৫,২৩২(+১৪১) জন, দিল্লিতে ৪,৩৬৯(+২২) জন, অন্ধ্রপ্রদেশে ৩,৬৩৩(+৯২) জন, উত্তরপ্রদেশে ৩,২১৭(+৬৮) জন, পশ্চিমবঙ্গে ৩,০১৭(+৫৩) জন, গুজরাটে ২,৯৭২(+১৭) জন, মধ্যপ্রদেশে ১,৩০৬(+২৪) জন, পাঞ্জাবে ১,২৫৬(+৩৭) জন, রাজস্থানে ১,০০৫(+১৩) জন, তেলেঙ্গানায় ৭৯৯(+১১) জন, জম্মু ও কাশ্মীরে ৬৭১(+১৪) জন, হরিয়ানায় ৬৪৬(+১২) জন, বিহারে ৫৩৮(+৮) জন, ওড়িশায় ৪৪৮(+৭) জন, ঝাড়খন্ডে ৩৮৩(+১১) জন, আসামে ২৭৮(+৪) জন, কেরালায় ২৬৭(+১০) জন, ছত্তিশগড়ে ২৪৫(+১৪) জন, উত্তরাখন্ডে ২২৮(+৯) জন, পুদুচেরীতে ১৯০(+১০) জন, গোয়াতে ১৭১(+৬) জন, ত্রিপুরাতে ৮৯(+৪) জন, চন্ডীগড়ে ৪৩(+২) জন, আন্দামান নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে ৪২(+১) জন, হিমাচল প্রদেশে ৩৩(+১) জন, মণিপুরে ২৫ জন, লাদাখে ২৭(+২) জন, নাগাল‍্যান্ডে ৯ জন, মেঘালয়ে ৮ জন, অরুণাচল প্রদেশে ৫ জন, দাদরা নগর হাভেলি এবং দমন দিউতে ২ জন ও সিকিমে ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের ওয়েবসাইট https://www.mohfw.gov.in/ -এর ২৮ আগস্ট সকাল ৮টার তথ্য অনুসারে।

জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন