প্রায় ২৬ লক্ষ ছুঁতে চললো ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। একদিনে নতুন করে সংক্রমিত হলেন আরো ৬৩ হাজার জন। রবিবার সকালে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, শেষ ২৪ ঘন্টায় দেশে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে ৬৩,৪৯০ জন। দেশে বর্তমানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২৫,৮৯,৬৮২ জন। কেন্দ্রীয় মন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত সংক্রমণ মুক্ত হয়েছেন ১৮,৬২,২৫৮ জন। অ‍্যাক্টিভ কেসের সংখ্যা ৬,৭৭,৪৪৪ জন। করোনা সংক্রমিত হয়ে ভারতে মারা গেছেন মোট ৪৯,৯৮০ জন। শেষ ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ৯৪৪ জন এবং সুস্থ ঘোষণা করা হয়েছে ৫৩,৩২২ জনকে। দেশে কোভিড রোগীদের সুস্থ হয়ে ওঠার হার ৭১.৯১ শতাংশ।

কেন্দ্রীয় সরকারের পরিসংখ্যান অনুসারে সর্বাধিক সংক্রমণের ঘটনা ঘটেছে মহারাষ্ট্রে, ৫,৮৪,৭৫৪ টি, শেষ ২৪ ঘন্টায় ১২,০২০ জনের শরীরে এই ভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়েছে। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে তামিলনাড়ু, সেখানে ৩,৩২,১০৫(+৫৮৬০) জনের শরীরে এই ভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়েছে। তৃতীয় স্থানে রয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশ, সেখানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২,৮১,৮১৭(+৮৭৩২)। দিল্লিকে ছাড়িয়ে চতুর্থ স্থানে উঠে এসেছে কর্ণাটক, সেখানে সংক্রমিতের সংখ্যা ২,১৯,৯২৬(+৮৮১৮) জন। দিল্লিতে সংক্রমিতের সংখ্যা ১,৫১,৯২৮(+১২৭৬) জন। উত্তরপ্রদেশে ১,৫০,০৬১(+৪৭৭৪) জন, পশ্চিমবঙ্গে ১,১৩,৪৩২(+৩০৭৪) জন ও বিহারে ১,০১,৫৫১(+৩৫৪৩) জনের শরীরে এই সংক্রমণ মিলেছে। তেলেঙ্গানাতে ৯১,৩৬১(+১১০২) জন, গুজরাটে ৭৭,৫৫৯(+১০৭৯) জন, আসামে ৭৫,৫৫৮(+১০৫৭) জন, রাজস্থানে ৫৯,৯৭৯(+১২৮৭) জন, ওড়িশায় ৫৭,১২৬(+২৪৯৬) জন, হরিয়ানাতে ৪৬,৪১০(+৭৯৬) জন, মধ্যপ্রদেশে ৪৪,৪৩৩(+১০১৯) জন, কেরালায় ৪২,৮৮৫(+১৬০৮) জন, পাঞ্জাবে ৩০,০৪১(+১০২৮) জন, জম্মু ও কাশ্মীরে ২৮,০২১(+৫৩২) জন, ঝাড়খন্ডে ২২,৩৮৯(+৭৯৪) জন, ছত্তিশগড়ে ১৪,৯৮৭(+৫০৬) জন, উত্তরাখণ্ডে ১১,৯৪০(+৩২৫) জন, গোয়াতে ১১,৩৩৯(+৩৬৯) জন, পুদুচেরিতে ৭,৩৫৪(+৩৫৯) জন, ত্রিপুরায় ৭,০৬১(+১২৭) জন, মণিপুরে ৪,৩৯০(+১৯২) জন, হিমাচল প্রদেশে ৩,৯৯৩(+১১৯) জন, নাগাল‍্যান্ডে ৩,৩৪০(+১৮) জন, অরুণাচল প্রদেশে ২,৬৫৮(+৫১) জন, আন্দামান নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে ২,৩০৬(+১২০) জন, চন্ডীগড়ে ২,০০৯(+৮১) জন, লাদাখে ১,৯০৯(+৩০) জন, দাদরা নগর হাভেলি এবং দমন ও দিউতে ১,৮৪৩(+৪৬) জন, মেঘালয়ে ১,২৯২(+৬৪) জন, সিকিমে ১,১৪৮(+৬৮) জন ও মিজোরামে ৭৭৭(+১২০) জনের শরীরে সংক্রমণ পাওয়া গেছে।

মৃতের সংখ্যার বিচারে রাজ‍্যগুলির মধ্যে প্রথম রয়েছে মহারাষ্ট্র, এখনও পর্যন্ত মোট ১৯,৭৪৯(+৩২২) জন আক্রান্তের মৃত্যু হয়েছে রাজ‍্যে। তামিলনাড়ুতে ৫,৬৪১(+১২৭) জন, দিল্লিতে ৪,১৮৮(+১০) জন, কর্ণাটকে ৩,৮৩১(+১১৪) জন, গুজরাটে ২,৭৬৫(+১৯) জন, অন্ধ্রপ্রদেশে ২,৫৬২(+৮৭) জন, উত্তরপ্রদেশে ২,৩৯৩(+৫৮) জন, পশ্চিমবঙ্গে ২,৩৭৭(+৫৮) জন,  মধ্যপ্রদেশে ১,০৯৪(+১৩) জন, রাজস্থানে ৮৬২(+১৬) জন, পাঞ্জাবে ৭৭১(+৪০) জন, তেলেঙ্গানায় ৬৯৩(+৯) জন, হরিয়ানায় ৫২৮(+১০) জন, জম্মু ও কাশ্মীরে ৫২৭(+৭) জন, বিহারে ৪৫০(+৮) জন, ওড়িশায় ৩৩৩(+৯) জন, ঝাড়খন্ডে ২২৮(+৪) জন, আসামে ১৮২(+৭) জন, উত্তরাখন্ডে ১৫১(+৪) জন, কেরালায় ১৪৬(+৭) জন, ছত্তিশগড়ে ১৩৪(+৪) জন, পুদুচেরীতে ১০৬ জন, গোয়াতে ৯৮(+৫) জন,  ত্রিপুরাতে ৫৫(+৫) জন, চন্ডীগড়ে ২৮ জন, আন্দামান নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে ২৪ জন, হিমাচল প্রদেশে ১৯ জন, মণিপুরে ১৩ জন, লাদাখে ১০(+১) জন, মেঘালয়ে ৬ জন, নাগাল‍্যান্ডে ৮ জন, অরুণাচল প্রদেশে ৫ জন, দাদরা নগর হাভেলি এবং দমন দিউতে ২ জন ও সিকিমে ১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের ওয়েবসাইট https://www.mohfw.gov.in/ -এর ১৬ আগস্ট সকাল ৮টার তথ্য অনুসারে।

জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন