ভারতে করোনা পরিস্থিতি ক্রমশই ভয়াবহ হয়ে উঠছে। একদিনে ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়লো ৫৫ হাজারেরও বেশি। শুক্রবার সকালে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, শেষ ২৪ ঘন্টায় দেশে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে ৫৫,০৭৮ জন। দেশে বর্তমানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৬,৩৮,৮৭০ জন। কেন্দ্রীয় মন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত সংক্রমণ মুক্ত হয়েছেন ১০,৫৭,৮০৫ জন। অ‍্যাক্টিভ কেসের সংখ্যা ৫,৪৫,৩১৮ জন। করোনা সংক্রমিত হয়ে ভারতে মারা গেছেন মোট ৩৫,৭৪৭ জন। শেষ ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ৭৭৯ জন এবং সুস্থ ঘোষণা করা হয়েছে ৩৭,২২৩ জনকে। দেশে কোভিড রোগীদের সুস্থ হয়ে ওঠার হার ৬৪.৫৪ শতাংশ।

কেন্দ্রীয় সরকারের পরিসংখ্যান অনুসারে সর্বাধিক সংক্রমণের ঘটনা ঘটেছে মহারাষ্ট্রে, ৪,১১,৭৯৮ টি, শেষ ২৪ ঘন্টায় ১১,১৪৭ জনের শরীরে এই ভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়েছে। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে তামিলনাড়ু, সেখানে ২,৩৯,৯৭৮(+৫৮৬৪) জনের শরীরে এই ভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়েছে। তৃতীয় স্থানে থাকা দিল্লিতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১,৩৪,৪০৩(+১০৯৩)। কর্ণাটককে ছাড়িয়ে চতুর্থ স্থানে উঠে এসেছে রয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশ, সেখানে সংক্রমিতের সংখ্যা ১,৩০,৫৫৭(+১০১৬৭) জন। কর্ণাটকে ১,১৮,৬৩২(+৬১২৮) জন, উত্তরপ্রদেশে ৮১,০৩৯(+৩৭০৫) জন, পশ্চিমবঙ্গে ৬৭,৬৯২(+২৪৩৪) জন ও গুজরাটে ৬০,২৮৫(+১১৫৯) জনের শরীরে এই সংক্রমণ মিলেছে। তেলেঙ্গানাতে ৬০,৭১৭(+১৮১১) জন, বিহারে ৪৮,৪৭৭(+২৩৯৭) জন, রাজস্থানে ৪০,১৪৫(+১১৮১) জন, আসামে ৩৮,৪০৭(+২১১২) জন, হরিয়ানাতে ৩৪,২৫৪(+৬২৩) জন, মধ্যপ্রদেশে ৩০,৯৬৮(+৮৩৪) জন, ওড়িশায় ৩০,৩৭৮(+১২০৩) জন, কেরালায় ২২,৩০৩(+৫০৬) জন, জম্মু ও কাশ্মীরে ১৯,৮৬৯(+৪৫০) জন, পাঞ্জাবে ১৫,৪৫৬(+৫১০) জন, ঝাড়খন্ডে ১০,১৬৭(+৩০৬) জন, ছত্তিশগড়ে ৮,৭৬১(+২২২) জন, উত্তরাখণ্ডে ৭,০৬৫(+১৯৯) জন, গোয়াতে ৫,৭০৪(+২১৫) জন, ত্রিপুরায় ৪,৭০৬(+২২১) জন, পুদুচেরিতে ৩,২৯৮(+১২১) জন, হিমাচল প্রদেশে ২,৫০৬(+১০৩) জন, মণিপুরে ২,৫০৫(+৪৭) জন, নাগাল‍্যান্ডে ১,৫৬৬(+৫৩) জন, অরুণাচল প্রদেশে ১,৪৮৪(+৭৫) জন, লাদাখে ১,৩৭৮(+৩১) জন, দাদরা নগর হাভেলি এবং দমন ও দিউতে ১,০৭৪(+৩৮) জন, চন্ডীগড়ে ১,০১৬(+৩৮) জন, মেঘালয়ে ৮০৩(+১৯) জন, সিকিমে ৬১০(+১৪) জন, আন্দামান নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে ৪৭১(+৪৩) জন ও মিজোরামে ৪০৮(+১০) জনের শরীরে সংক্রমণ পাওয়া গেছে।

মৃতের সংখ্যার বিচারে রাজ‍্যগুলির মধ্যে প্রথম রয়েছে মহারাষ্ট্র, এখনও পর্যন্ত মোট ১৪,৭২৯(+২৬৬) জন আক্রান্তের মৃত্যু হয়েছে রাজ‍্যে। দিল্লিতে ৩,৯৩৬(+২৯) জন, তামিলনাড়ুতে ৩,৮৩৮(+৯৭) জন, গুজরাটে ২,৪১৮(+২২) জন, কর্ণাটকে ২,২৩০(+৮৩) জন, উত্তরপ্রদেশে ১,৫৮৭(+৫৭) জন, পশ্চিমবঙ্গে ১,৫৩৬(+৪৬) জন, অন্ধ্রপ্রদেশে ১,২৮১(+৬৮) জন, মধ্যপ্রদেশে ৮৫৭(+১৪) জন, রাজস্থানে ৬৬৩(+১৩) জন, তেলেঙ্গানায় ৫০৫(+১৩) জন, হরিয়ানায় ৪১৭(+৪) জন, পাঞ্জাবে ৩৭০(+৯) জন, জম্মু ও কাশ্মীরে ৩৬৫(+১৭) জন, বিহারে ২৮২(+৪) জন, ওড়িশায় ১৬৯(+১০) জন, ঝাড়খন্ডে ১০৩(+৫) জন, আসামে ৯৪(+২) জন, উত্তরাখন্ডে ৭৬(+৪) জন, কেরালায় ৭০(+২) জন, ছত্তিশগড়ে ৫১(+৩) জন, পুদুচেরীতে ৪৮(+১) জন, গোয়াতে ৪২(+৩) জন, ত্রিপুরাতে ২১ জন, চন্ডীগড়ে ১৪ জন, হিমাচল প্রদেশে ১৪ জন, লাদাখে ৭(+১) জন, মেঘালয়ে ৫ জন, নাগাল‍্যান্ডে ৫ জন, মণিপুরে ৪(+৪) জন, আন্দামান নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে ৪(+২) জন, অরুণাচল প্রদেশে ৩ জন, দাদরা নগর হাভেলি এবং দমন দিউতে ২ জন ও সিকিমে ১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের ওয়েবসাইট https://www.mohfw.gov.in/ -এর ৩১ জুলাই সকাল ৮টার তথ্য অনুসারে।

জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন