ভারতে করোনা পরিস্থিতি ক্রমশই ভয়াবহ হয়ে উঠছে। একদিনে ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়লো ৫২ হাজারেরও বেশি। বৃহস্পতিবার সকালে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, শেষ ২৪ ঘন্টায় দেশে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে ৫২,১২৩ জন। দেশে বর্তমানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৫,৮৩,৭৯২ জন। কেন্দ্রীয় মন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত সংক্রমণ মুক্ত হয়েছেন ১০,২০,৫৮২ জন। অ‍্যাক্টিভ কেসের সংখ্যা ৫,২৮,২৪২ জন। করোনা সংক্রমিত হয়ে ভারতে মারা গেছেন মোট ৩৪,৯৬৮ জন। শেষ ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ৭৭৫ জন এবং সুস্থ ঘোষণা করা হয়েছে ৩২,৫৫৩ জনকে। দেশে কোভিড রোগীদের সুস্থ হয়ে ওঠার হার ৬৪.৪৪ শতাংশ।

 কেন্দ্রীয় সরকারের পরিসংখ্যান অনুসারে সর্বাধিক সংক্রমণের ঘটনা ঘটেছে মহারাষ্ট্রে, ৪,০০,৬৫১ টি, শেষ ২৪ ঘন্টায় ৯,২১১ জনের শরীরে এই ভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়েছে। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে তামিলনাড়ু, সেখানে ২,৩৪,১১৪(+৬৪২৬) জনের শরীরে এই ভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়েছে। তৃতীয় স্থানে থাকা দিল্লিতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১,৩৩,৩১০(+১০৩৫)। কর্ণাটককে ছাড়িয়ে চতুর্থ স্থানে উঠে এসেছে রয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশ, সেখানে সংক্রমিতের সংখ্যা ১,২০,৩৯০(+১০০৯৩) জন। কর্ণাটকে ১,১২,৫০৪(+৫৫০৩) জন, উত্তরপ্রদেশে ৭৭,৩৩৪(+৩৩৮৩) জন, পশ্চিমবঙ্গে ৬৫,২৫৮(+২২৯৪) জন ও গুজরাটে ৫৯,১২৬(+১১৪৪) জনের শরীরে এই সংক্রমণ মিলেছে। তেলেঙ্গানাতে ৫৮,৯০৬(+১৭৬৪) জন, বিহারে ৪৬,০৮০(+২২৩৭) জন, রাজস্থানে ৩৮,৯৬৪(+৪৫০) জন, আসামে ৩৬,২৯৫(+১৩৪৮) জন, হরিয়ানাতে ৩৩,৬৩১(+৭৫৫) জন, মধ্যপ্রদেশে ৩০,১৩৪(+৯১৭) জন, ওড়িশায় ২৯,১৭৫(+১০৬৮) জন, কেরালায় ২১,৭৯৭(+৯০৩) জন, জম্মু ও কাশ্মীরে ১৯,৪১৯(+৫৪০) জন, পাঞ্জাবে ১৪,৯৪৬(+৫৬৮) জন, ঝাড়খন্ডে ৯,৮৬১(+৭৮৩) জন, ছত্তিশগড়ে ৮,৫৩৯(+২৮২) জন, উত্তরাখণ্ডে ৬,৮৬৬(+২৭৯) জন, গোয়াতে ৫,৪৮৯(+২০২) জন, ত্রিপুরায় ৪,৪৮৫(+২১৬) জন, পুদুচেরিতে ৩,১৭৭(+১৬৬) জন, মণিপুরে ২,৪৫৮(+১৪১) জন, হিমাচল প্রদেশে ২,৪০৩(+৭৩) জন, নাগাল‍্যান্ডে ১,৫১৩(+৫৩) জন, অরুণাচল প্রদেশে ১,৪১০(+৮০) জন, লাদাখে ১,৩৪৭(+২০) জন,  দাদরা নগর হাভেলি এবং দমন ও দিউতে ১,০২৬(+৪৪) জন, চন্ডীগড়ে ৯৭৮(+৪৪) জন,  মেঘালয়ে ৭৮৪(+৫) জন,  সিকিমে ৫৯৬(+১৭) জন, আন্দামান নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে ৪২৮(+৬৫) জন ও মিজোরামে ৩৯৮(+১৪) জনের শরীরে সংক্রমণ পাওয়া গেছে।

মৃতের সংখ্যার বিচারে রাজ‍্যগুলির মধ্যে প্রথম রয়েছে মহারাষ্ট্র, এখনও পর্যন্ত মোট ১৪,৪৬৩(+২৯৮) জন আক্রান্তের মৃত্যু হয়েছে রাজ‍্যে। দিল্লিতে ৩,৯০৭(+২৬) জন, তামিলনাড়ুতে ৩,৭৪১(+৮২) জন, গুজরাটে ২,৩৯৬(+২৪) জন, কর্ণাটকে ২,১৪৭(+৯২) জন, উত্তরপ্রদেশে ১,৫৩০(+৩৩) জন, পশ্চিমবঙ্গে ১,৪৯০(+৪১) জন, অন্ধ্রপ্রদেশে ১,২১৩(+৬৫) জন, মধ্যপ্রদেশে ৮৪৩(+১৩) জন, রাজস্থানে ৬৫০(+৬) জন, তেলেঙ্গানায় ৪৯২(+১২) জন, হরিয়ানায় ৪১৩(+৭) জন, পাঞ্জাবে ৩৬১(+২৫) জন, জম্মু ও কাশ্মীরে ৩৪৮(+১৫) জন, বিহারে ২৭৮(+৯) জন, ওড়িশায় ১৫৯(+৫) জন, ঝাড়খন্ডে ৯৮(+৯) জন, আসামে ৯২(+৪) জন, উত্তরাখন্ডে ৭২(+২) জন, কেরালায় ৬৮(+১) জন, ছত্তিশগড়ে ৪৮(+২) জন, পুদুচেরীতে ৪৭ জন, গোয়াতে ৩৯(+৩) জন, ত্রিপুরাতে ২১ জন, চন্ডীগড়ে ১৪ জন, হিমাচল প্রদেশে ১৪ জন, মেঘালয়ে ৫ জন, নাগাল‍্যান্ডে ৫ জন, অরুণাচল প্রদেশে ৩ জন, লাদাখে ৬ জন, দাদরা নগর হাভেলি এবং দমন দিউতে ২ জন, সিকিমে ১ জন ও আন্দামান নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে ২(+১) জনের মৃত্যু হয়েছে।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের ওয়েবসাইট https://www.mohfw.gov.in/ -এর ৩০ জুলাই সকাল ৮টার তথ্য অনুসারে।

জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন