'এখনও রাজ্যবাসীর চোখ খুলবে না?' - বজরং দলের পোস্টারের প্রতিবাদে সরব শ্রীলেখা

'এখনও রাজ্যবাসীর চোখ খুলবে না?' - বজরং দলের পোস্টারের প্রতিবাদে সরব শ্রীলেখা
শ্রীলেখা মিত্রশ্রীলেখা মিত্রের ফেসবুক পেজ থেকে সংগৃহীত

বিয়েটাই শেষ কথা। তার আগে যুগলকে একসঙ্গে দেখা পাপ। এই হচ্ছে এবারের সরস্বতী পুজোর থিম। ১৪ ফেব্রুয়ারি ভ্যালেন্টাইন্স ডে'র ঠিক একদিন পর ছিল সরস্বতী পুজো। বাঙালি মাত্রই সব বয়সীদের কাছে সরস্বতী পুজো মানেই একটা অন্য আবেগ, নস্টালজিয়া। বাঙালির নিজের মতো করে কাটানোর ভ্যালেন্টাইন্স ডে। প্রথম শাড়ি পরা, অনভ্যস্ত ভাবে শাড়ি সামলানো, জিনসের উপরেই পাঞ্জাবি পরা, আড়চোখে ক্রাশকে দেখা-এসবই সরস্বতী পুজোর উপলক্ষ। কিন্তু এসব নাকি এখন আর করা যাবে না। বসন্ত এলেও তা প্রকাশের কোনও উপায় নেই। অভ্যাস ত্যাগ করতে হবে। এমনই নিদান দেওয়া হয়েছে বজরং দলের নামে একটি পোস্টারে। আর তা সামনে এনে শেয়ার করেই ফেসবুকে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র।

ওই পোস্টারে ‘সতর্কীকরণ’ হিসেবে লেখা হয়েছে, “ভ্যালেন্টাইনস ডে’র উৎসব ভারতীয় সংস্কৃতির পরিপন্থী। সুতরাং বিশ্বহিন্দু পরিষদ এবং বজরং দলের পক্ষ থেকে অনুরোধ করা হচ্ছে ওই দিন খোলা জায়গায় কোনও যুগল যেন দৃষ্টিতে না আসে। দৃষ্টিকটূ অবস্থায় না দেখা যায়। এরকম ঘটনায় তাদের বাবা-মায়ের সাথে আলোচনা বা প্রয়োজনে বিবাহের ব্যবস্থা করা হবে।” নিষেধাজ্ঞা এখানেই শেষ নয়। নির্বাচনের পর পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি সরকার আসবে। সেকথা লিখে ‘লাভ জিহাদ’ ও ‘ব্যভিচারে’র বিরুদ্ধে উপযুক্ত পদক্ষেপ করার কথাও লেখা হয়। সতর্কবার্তার বিভিন্ন জায়গায় ‘জয় শ্রী রাম’ লেখা হয়েছে।

শ্রীলেখা মিত্রের ফেসবুক পোস্ট
শ্রীলেখা মিত্রের ফেসবুক পোস্টশ্রীলেখা মিত্রের ফেসবুক পেজ থেকে স্ক্রিনশট

শ্রীলেখা লিখেছেন, “আমি কী লিখব বুঝতে পারছি না। ভাষা হারিয়ে ফেলেছি, এঁদের মানুষের হাতে ছেড়ে দেওয়া উচিত। একবারও লজ্জা লাগে না এই ধরনের কাজ করতে? এখনও ক্ষমতাতে আসনি তাতেই এই? এখনও রাজ্যবাসীর চোখ খুলবে না? জেগে উঠুন, এখন নয়তো কখন? ‘সতীদাহ’র নামে বিধবা তরুণীদের জ্বালিয়ে দিলেও অবাক হব না।”

সরস্বতী পুজোর দিনও এমন পোস্টার পড়েছে বিভিন্ন জায়গায়। তাতে হুঁশিয়ারি দিয়ে লেখা, “বাঙালির সরস্বতী পুজোর এই পূণ্য দিনটিকে এবং আমাদের সংস্কৃতিকে পাশ্চাত্য সংস্কৃতি ব্যবহার করে নষ্ট করে দেওয়া হচ্ছে। এই দিনটিকে ভ্যালেন্টাইন্স ডে’তে পরিণত করা হয়েছে। যদি এই দিনটিতে কাউকে জুটি হিসেবে ঘুরে বেড়াতে দেখা যায় তাহলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in