Colors: Blue Color

‘হু’ কে? আমরা ওসব হু ফু জানিনা। আমরা করোনা বিশেষজ্ঞ। একদিকে দেশে বিদেশে পাল্লা দিয়ে করোনা ভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে, মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে করোনা বিশেষজ্ঞর সংখ্যা। আর এই সময়েই শুধু সোশ্যাল মিডিয়া নয়, রাস্তা ঘাটে বাসে ট্রেনে স্বঘোষিত এই করোনা বিশেষজ্ঞদের হাজারো নিদানের ভিড়ে হারিয়ে যাচ্ছে প্রকৃত সতর্কতা। গুলিয়ে যাচ্ছে কী করা উচিৎ আর কী করা উচিৎ নয়। আতঙ্ক নয়, সতর্ক থাকুন তাই এই কয়েকদিনে অনেকটাই সতর্ক নয়, আতঙ্কে থাকুন-এ বদলে গেছে।

নিতান্তই নিরীহ, গুরুত্বহীন এবং লঘু এক ঘটনাকে ঘিরে সব নজর ঘুরে গেল যাদবপুরে। অথচ গতকালই আদালত জানিয়ে দিয়েছে প্রাক্তন পুলিশ কমিশনারের গ্রেপ্তারিতে কোনো বাধা নেই। সারাদিন সিবিআই-এর বিশেষ দল শহর কলকাতায় আতিপাতি খুঁজেও সন্ধান পায়নি প্রাক্তন পুলিশ কমিশনারের।

৬ ডিসেম্বর। দিনটা কালো দিন হিসেবেই ইতিহাসে লেখা আছে। থাকবে। ভারতীয় সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ধ্বংসের এই দিনে বাবরি মসজিদ ধ্বংস নিয়ে দিনভর চর্চায় থাকারই কথা ছিলো। যদিও গতকাল দেশের মানুষের ঘুম ভেঙেছিলো 'এনকাউন্টার'-এর খবরে। যে খবর আর সবকিছুকেই পেছনে ফেলে দেয়। তাই গতকাল মানুষের চর্চায় এক বীভৎস ধ্বংসলীলা, বাবরি মসজিদ ধ্বংসের কথা ছিলো না, ছিলো শুধুই এনকাউন্টার। 

ভোট পর্ব মিটেছে ঠিক ২০ দিন। এখনও একমাস পূর্ণ হয়নি। এর মধ্যেই যুযুধান দুই রাজনৈতিক দল শক্তি প্রদর্শনে, এলাকা দখলের খোলা ময়দানে লড়ে যাচ্ছে। একদিকে যেমন প্রবল উত্তেজনায় চলছে দলবদল, তার সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলছে খুনোখুনি। আজ বসিরহাট তো কাল ভাটপাড়া, পরশু আমতা, তার পরের দিন মথুরাপুর। লোকসভা নির্বাচনের ভোট শতাংশের বিচারে রাজ্য রাজনীতিতে ক্ষয়িষ্ণু শক্তি বামেদের কর্মীও এই সময়ে খুন হয়ে গেছেন। অর্থাৎ এই হানাহানি শুধুমাত্রই এলাকা দখলের কারণে তা পরিষ্কার।

৪-এ পা। পিপলস রিপোর্টারের তিন বছর কাটলো গুজব এড়িয়ে, পাঠককে খবরে রেখেই। যা অবশ্যই ছোটোখাটো এক যুদ্ধের সমান। অসম যুদ্ধ। কারণ, সময়টা এমনই - যখন বিক্রি করাই ধর্ম, বিক্রি হওয়াই ধর্ম। খোলা বাজারের এই বিকিকিনিতে মুড়ি মিছরির ফারাক তৈরি করার চেষ্টা চালানোটাই মূল লড়াই। সেটাই পিপলস রিপোর্টার করে এসেছে তিন বছর ধরে।

আপাতত বিতর্ক থাক। কোন রাজনৈতিক দল ভেঙেছে বা কাদের প্ররোচনা – থাক সে বিতর্কও। মূর্তিটা ভাঙ্গা হয়েছে এটা যেমন সত্যি, তেমনই এটাও সত্যি - ঈশ্বরচন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়কে অত সহজে ভাঙ্গা যায় না। তিনি যে সময়ে এই বাংলার বুকে এর চেয়ে ঢের বেশি প্রতিকূলতার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়ে একের পর এক লড়াই জিতেছিলেন তার তুলনায় এ তো কোন ছার। তাই এই ঘটনায় পণ্ডিত ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের কিছু যায় আসে না।

জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন